ঢাকা, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ আপডেট : ৩০ মিনিট আগে
শিরোনাম

স্কুলছাত্রীকে পিটিয়ে জখম, উদ্ধার করতে গিয়ে মা আহত

  জামালপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ : ০২ মার্চ ২০২৩, ১৭:৫০

স্কুলছাত্রীকে পিটিয়ে জখম, উদ্ধার করতে গিয়ে মা আহত
হামলাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করে বিক্ষুব্ধ ছাত্রীরা। ছবি: প্রতিনিধি

জামালপুরে স্কুলে আসার পথে মীম আক্তার (১৫) নামে এক স্কুলছাত্রীকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা।

হামলাকারীদের হাত থেকে মেয়েকে উদ্ধার করতে গেলে ওই ছাত্রীর অন্তসত্ত্বা মা পলি বেগমকে (৩৫) পিটিয়ে আহত করে। আহতদের জখম অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। মীমের মা পলি বেগম গর্ভবতী থাকায় তার অবস্থা আশংকাজনক। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় পোড়াবাড়ি এলাকায় এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে।

আহত মীম রহিমা-কাজিম উদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী। সে সদর উপজেলার তিতপল্লা ইউনিয়নের পোড়া বাড়ি গ্রামের আল-আমিনের মেয়ে।

মীমের আহতের খবর স্কুলে পৌঁছলে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা। বিক্ষুব্ধ ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকেরা তিতপল্লা-ভাটারা সড়ক অবরোধ করে হামলাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে। মানববন্ধনে বক্তারা, অবিলম্বে মীমের ওপর হামলাকারী নজরুল ও শামীমসহ সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসনের প্রতি।

মীমের মা পলি বেগম বলেন, নজরুল ও শামীমের পরিবারের সাথে আমার স্বামীর দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। প্রায় আমাদের বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়া-আসার পথে টিনের বেড়ায় লাঠি দিয়ে বারি দিতো ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতো। স্কুলে যাওয়া আসার পথেও মীমকে উত্ত্যক্ত করতো। আজ সকালেও নজরুল ও শামীম উত্ত্যক্ত করতে গেলে মীম প্রতিবাদ করায় তাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। রক্তাক্ত অবস্থায় মীমকে উদ্ধার করতে গেলে আমাকেও বেদম মারধর করে। মেয়ে ও আমার ওপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও আমার পরিবারের নিরাপত্তার দাবি জানাচ্ছি।

অভিযুক্ত নজরুল ও শামীমের সাথে এ বিষয়ে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় মন্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে রহিমা-কাজিম উদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ শফিউল করিম বলেন, তার স্কুলের ছাত্রী মীমের ওপর হামলাকারী নজরুল ও শামীমকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে অবহিত করেছি। স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে। তাদের সাথে সহমত পোষণ করে আমরাও মানববন্ধনে অংশ নিয়েছি।

এ ব্যাপারে মীমের মা পলি বেগম বাদি হয়ে জামালপুর সদর থানায় মামলা দায়ের করেছে।

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বলেন, এ ব্যাপারে মামলা নেয়া হয়েছে। আজ বিকেলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আসামি নজরুল ও শামীমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমপি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত