ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ আপডেট : ৬ মিনিট আগে
শিরোনাম

ডাল ক্ষেতে বিষ প্রয়োগ, শতাধিক কবুতরসহ বন্যপাখির মৃত্যু

  পটুয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশ : ২৪ মার্চ ২০২৪, ১৯:৩৭

ডাল ক্ষেতে বিষ প্রয়োগ, শতাধিক কবুতরসহ বন্যপাখির মৃত্যু
ডাল ক্ষেতে বিষ প্রয়োগের ফলে অসংখ্য কবুতরসহ বন্যপাখি মারা যায়। ছবি: প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ডাল ক্ষেতে বিষ প্রয়োগের ফলে ৫ শতাধিক কবুতরসহ অগনিত বন্যপাখির মৃত্যু হয়েছে। এতে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ওই এলাকার প্রায় অর্ধশতাধিক কবুতর খামারি।

শনি ও রোববার উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের পশ্চিম হাজিপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই এলাকার কৃষক মেহেদী শেখ তার ক্ষেতে বিষ প্রয়োগের ফলে এসব পাখির মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। গত বছরও ওই এলাকার কৃষি ক্ষেতে বিষ প্রয়োগের ফলে বেশ কিছু কবুতর মারা পড়েছে বলে স্থানীয়রা জানান। এ ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এনিমেল লাভার্স অফ পটুয়াখালীর কলাপাড়া শাখার সদস্য ও বন বিভাগের কর্মকর্তারা।

ভুক্তভোগী খামারি মেসকাত মিয়া জানান, আমি সরকারি মোজাহার উদ্দিন বিশ্বাস ডিগ্রী কলেজে অনার্সে পড়ি। পাশাপাশি বেশ কিছু কবুতর পালন করি। শনিবার সকালে প্রায় ৪২টা কবুতর আমার খামার থেকে ছেড়ে দেই। দুপুর বারোটার দিকে বাড়ি এসে দেখি ২২টা কবুতর মারা গেছে। আমার বাড়ির পেছনে ডাল চাষ করেছেন মেহদী শেখ। তিনি ক্ষেতে ধানের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে ছিটিয়ে দিয়েছেন। যাতে কোন পাখি বা কবুতর ক্ষেতে না বসে। তার ক্ষেত থেকে কবুতর বাড়িতে আসার পরই মৃত্যু হয়। শুধু আমার কবুতরই নয় এই এলাকার অনেক কবুতরসহ বিভিন্ন প্রজাতির পাখির মৃত্যু হয়েছে।

একই এলাকার অপর কবুতর খামারি ইব্রাহিম শিকারী জানান, গতকাল আমার খামারের ১০টি কবুতর মারা গেছে। মারা যাওয়া অনেক কবুতরের ছোট ছোট বাচ্চা রয়েছে। এখন এই বাচ্চা কবুতরের অবস্থাও কাহিল। আমি অনেক লোকসানে পরে গেলাম। মেহেদীর ক্ষেতের ডাল খেয়েই এসব কবুতরের মৃত্যু হয়েছে। তবে ক্ষেতে বিষ দেয়ার আগে আমাদের জানালে আমরা কবুতরগুলো আটকে রাখতাম। এছাড়া ঘুঘু ও শালিকসহ বিভিন্ন বন্য পাখিরও মৃত্যু হয়েছে। একই কথা জানিয়েছেন মনির, সবুজ ও ছালেকসহ অনেক কবুতর খামারি।

এ বিষয়ে মেহেদী শেখ তার বিরুদ্ধে আনিত সব অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং তিনি নিজেও কবুতর পালন করেন বলে জানান।

এনিমেল লাভার্স অব পটুয়াখালী'র কলাপাড়া শাখার টিম লিডার রাকায়েত আহসান জানান, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বন্যপাখি ও কবুতরের মৃত্যুর সত্যতা পেয়েছি। বন বিভাগকে খবর দিয়ে স্থানীয় কৃষকদের সচেতন করেছি। আশা করছি তারা ক্ষেতে বিষ প্রয়োগের ফলে সচেতন হবে।

কলাপাড়া বন বিভাগের সদস্য নীলগঞ্জ ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা কামরুল আলম জানান, আমরা এখানে এসে জানতে পেরেছি বেশ কয়েকজন খামারির কবুতর মারা গেছে। এছাড়া কিছু বন্য পাখিরও মৃত্যু হয়েছে। ডাল ক্ষেতে বিষ প্রয়োগের ফলে এসব পাখির মৃত্যু হয়েছে এবং একজন কৃষককে অভিযুক্ত করেছেন এই এলাকার খামারিরা। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবো।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমপি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত