ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৬ অাপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ১৮:০৪

প্রিন্ট

পটুয়াখালীতে সিভিল সার্জনের নামে দুদকের মামলা

পটুয়াখালীতে সিভিল সার্জনের নামে দুদকের মামলা
পটুয়াখালী প্রতিনিধি

স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন তহবিলের প্রায় ৪০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা. শাহ্ মোজাহেদুল ইসলাম এবং কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. চিন্ময় হালদারের নামে মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার সকালে দুদকের উপ সহকারী পরিচালক মানিক লাল দাস বাদী হলে পটুয়াখালী সদর থানায় একটি এবং কলাপাড়া থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করেন।

পটুয়াখালী সদর থানায় দায়ের করা মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে দুমকি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পারিকল্পনা কার্যালয়ের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা এবং অনান্য কাজের জন্য ৩০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। বরাদ্দ থেকে তিন লাখ ৩২ হাজার ১২০ টাকা ভ্যাট কেটে বাকি ২৬ লাখ ৬৭ হাজার ৮৯৮ টাকা জালিয়াতির মাধ্যমে আত্মসাৎ করেন সিভিল সার্জন মোজাহেদুল ইসলাম। যা দণ্ডবিধির ৪০৯/৪২০/৪৬৭/৪৬৮ এবং ১৯৪৭ সালের ২ নং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

কলাপাড়া থানায় দায়ের করা মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অনুকূলে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজের জন্য সরকারি বরাদ্দের ১০ লাখ টাকার মধ্যে ভ্যাট কাটার পর বাকি নয় লাখ ২৯ হাজার ৬৮৫ টাকা আত্মসাৎ করেন সিভিল সার্জন মোজাহেদুল ইসলাম এবং কলপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. চিন্ময় হালদার।

দুর্নীতি দমন কমিশন পটুয়াখালী সমন্বিত কার্যালয়ের উপ সহকারী পরিচালক ও মামলা বাদী মানিক লাল দাস জানান, সদর থানায় সিলিভ সার্জনকে আসামি করে মঙ্গলবার সকালে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলাটির নম্বর ৩০। কলাপাড়া থানায় সিভিল সার্জন এবং কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে আসামি করে আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং ১৩।

সিভিল সার্জন মোজাহেদুল ইসলাম দাবি করেন, তিনি কোনো টাকা আত্মসাৎ করেননি। তবে এক তহবিলের টাকা অন্য তহবিলে ব্যয় করেছেন।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত