ঢাকা, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬ অাপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:০৬

প্রিন্ট

চাঁদা না দেয়ায় নির্মাণাধীন পাওয়ার প্ল্যান্টে হামলা

চাঁদা না দেয়ায় নির্মাণাধীন পাওয়ার প্ল্যান্টে হামলা
ফাইল ছবি
রূপগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে দাবিকৃত চাঁদার টাকা না পেয়ে ইনডেক্স গ্রুপের নির্মাণাধীন পাওয়ার প্ল্যান্টে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। হামলাকারীরা ব্যাপক ভাঙচুর ও ক্ষয়ক্ষতি করে।

এ সময় তারা ইনডেক্স গ্রুপের প্রকল্প ব্যবস্থাপকসহ কমপক্ষে ১২ জনকে পিটিয়ে আহত করে। সোমবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার ভুলতা ইউনিয়নের হাটাব এলাকায় ঘটে এ ঘটনা।

ইনডেক্স গ্রুপের সমন্বয় কর্মকর্তা কাউসার ভুইয়া জানান, জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বেসরকারি প্রকল্পের অধীনে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ইনডেক্স গ্রুপ উপজেলার ভুলতা ইউনিয়নের হাটাব এলাকায় একটি পাওয়ার প্ল্যান্ট স্থাপনের কাজ শুরু করে।

এ অবস্থায় কিছুদিন ধরে হাটাব এলাকার জুয়েল, রাহুল, বাবুলসহ একদল সন্ত্রাসী ইনডেক্স গ্রুপের পাওয়ার প্ল্যান্টের কাজ করা বাবদ ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে তার কাছে। তিনি কোনো চাঁদা দেবেন না বলে তাদের সাফ জানিয়ে দিলে প্রতিষ্ঠান কীভাবে তৈরি হয় তা দেখে নেয়ার হুমকি দেয় চাঁদাবাজরা।

এরই জেরে সোমবার সকাল ১০টার দিকে জুয়েল, রাহুল, বাবুল, আলমগীরসহ ৩০/৩৫ জন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির ভেতরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে।

এ সময় হামলাকারীরা ইনডেক্স গ্রুপের প্রকল্প ব্যবস্থাপক আব্বাসউদ্দিন, হিসাব রক্ষক আলমগীর হোসেন, কন্সট্রাকশন শ্রমিক কুদরত আলী, রবিউল ইসলাম, সালামসহ অন্তত ১০ জনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।

একপর্যায়ে প্রতিষ্ঠানের ভেতরে কর্মরত শ্রমিকদের বের করে দিয়ে সব কাজ বন্ধ করে দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত জুয়েলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি চাঁদাবাজির বিষয়টি মিথ্যা দাবি করে বলেন, আমরা এলাকার কয়েকজন মিলে ওই প্রতিষ্ঠানে কাজের জন্য গিয়েছিলাম। এ সময় প্রতিষ্ঠানের একজন আমাদের ছবি তোলেন। এ কারণে আমার লোকজন প্রতিষ্ঠানের কয়েকজনকে চড়থাপ্পড় মেরেছে। এর বেশি কোনো ঘটনা ঘটেনি।

রূপগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আব্দুল হক বলেন, পাওয়ার প্ল্যান্টে হামলার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close