ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:৪৪

প্রিন্ট

স্কুলে ভর্তি না করায় শিশুর আত্মহনন

স্কুলে ভর্তি না করায় শিশুর আত্মহনন
প্রতীকী ছবি
অনলাইন ডেস্ক

বড় দুই বোনের সাথে ঢাকায় এসেছিলো ১১ বছরের রিমা আক্তার। কথা ছিলো রাজধানীর কোনো একটি স্কুলে তাকে ভর্তি করে দেয়া হবে। কিন্তু পোশাক শ্রমিক বোনেরা তাকে সময় মতো স্কুলে ভর্তি না করায় অভিমান করে প্রাণ দিলো রিমা।

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে রাজধানীর সবুজবাগে গলায় ফাঁস দেয় ওই শিশু। প্রতিবেশীরা তাকে অচেতন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত শিশু ফরিদপুরের সালতা উপজেলার শিহিপুর গ্রামের দিনমজুর আওলাদ হোসেনের সন্তান। বড় দুই বোনের সঙ্গে সে সবুজবাগ মাদারটেক সরকারপাড়া এলাকায় টিনশেড বাড়িতে থাকতো।

রিমার বড় বোন সোমা বলেন, আমরা দুই বোন মালিবাগে একটি গার্মেন্টসে চাকরি করি। ছোট বোন রিমা আমাদের কাছেই থাকতো। বেশ কয়েক মাস আগে তাকে গ্রাম থেকে আমরা ঢাকায় নিয়ে এসেছি। সে তখন গ্রামের একটা স্কুলে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়তো। ঢাকায় তাকে স্কুলে ভর্তি করে দেয়ার কথা ছিলো। জানুয়ারি মাস চলে গেলো, ফেব্রুয়ারি মাস চলে যাচ্ছে। এখনো কেন তাকে স্কুলে ভর্তি করিনি- তা নিয়ে সোমবার রাতে রিমার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়।

সোমা বলেন, একপর্যায়ে তাকে আমি বলি আমার ছুটি নেই। ছুটি হলে একদিন তোকে নিয়ে স্থানীয় একটি স্কুলে গিয়ে ভর্তি করিয়ে দেবো। তখন রিমা আমাদের বলে, স্কুলে ভর্তি করার আর সময় নেই। কাল সকালেই তোমরা দেখবা আমি কী করি। তখন তার এই কথা আমরা বুঝতে পারিনি। আজ দুপুরে অফিস থেকে বাসায় এসে জানতে পারি আমাদের ছোট বোন গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আশপাশের লোকজন তাকে নিয়ে হাসপাতালে যায়। হাসপাতালে এসে বোনের লাশ দেখতে পাই।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
close
close