ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ অাপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৬ মে ২০১৯, ১৬:৫১

প্রিন্ট

এবার থানা হাজতে যুবকের ঝুলন্ত লাশ

এবার থানা হাজতে যুবকের ঝুলন্ত লাশ
কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

টুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার মহিপুর থানা হাজতে ইয়াবাসহ গ্রেফতারকৃত এক যুবকের 'আত্মহত্যা' নিয়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে গলায় ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই দিন রাতে কুয়াকাটা থেকে তাকে ১৩ পিস ইয়াবাসহ আটক করা হয়। মৃত যুবক বাকেরগঞ্জ উপজেলার তবিরকাঠী গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। সে পটুয়াখালী-কুয়াকাটাগামী ইমন বাসের হেলপার হিসেবে কাজ করছিলো বলে জানা গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানায়, বুধবার রাত রাত সাড়ে নয়টার দিকে কুয়াকাটা জেলা পরিষদ ডাকবাংলোর সামনে থেকে ১৩ পিস ইয়াবাসহ রায়হানকে আটক করে মহিপুর থানা পুলিশের এসআই সাইদুল। সকলের অগোচরে পড়নে লুঙ্গি দিয়ে থানা হাজতের ভেন্টিলেটরের সাথে গলায় ফাঁস দেয়। ওই রাতেই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জালাল আহমেদ, নির্বাহী মেজিস্ট্রেট ও কলাপাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনুপ কুমার দাস এবং কুয়াকাটা হাসপাতালের মেডিকেল আফিসার মনিরুজ্জামানের উপস্থিতে উপস্থিতে লাশ উদ্বার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

কুয়াকাটা ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের চিকিৎসক মনিরুজ্জামান জানান, গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত লাশ থানা হাজত থেকে উদ্বার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা বলে মনে হয়েছে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

মহিপুর থানার ওসি সাইদুল ইসলাম জানান, থানা হাজতের ভেনটিলেটরের রডের সাথে পড়নের লুঙ্গি ছিড়ে দড়ি বানিয়ে সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তার বিরুদ্ধে নলছিটি থানায় দুটি, বাকেরগঞ্জ ও মহিপুর থানায় একটি করে মোট চারটি মাদক মামলা রয়েছে। থানা হাজতে কী কারনে সে আত্মহত্যা করেছে জানাতে না পারেনি। তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর বিস্তারিত জানা যাবে। লশা মর্গে পাঠানো হয়েছে এবং থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close