ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৯ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ১৪ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৯, ১৭:৪৭

প্রিন্ট

শাশুড়িকে হত্যাকারী সিআইডি কনস্টেবল গ্রেপ্তার

শাশুড়িকে হত্যাকারী সিআইডি কনস্টেবল গ্রেপ্তার
চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

শাশুড়িকে খুন করে পালিয়ে যাওয়া চুয়াডাঙ্গার সিআইডি কনস্টেবল অসীম ভট্টাচার্যকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার চুয়াডাঙ্গা শহরের ঘোড়ামাড়া ব্রিজের কাছ থেকে তাকে আটক করা হয়। কনস্টেবল অসীম ভট্টচার্যর আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কানাই লাল সরকার।

পুলিশ জানায়, শাশুড়িকে খুন করার পর থেকেই পালাতক ছিলেন অসীম। তাকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম মাঠে কাজ করছিল। বুধবার বিকেলে শহরের ঘোড়ামাড়া ব্রিজের কাছে অবৈধ মোটরসাইকেল অভিযান পরিচালনা করছিল ট্রাফিক পুলিশ। এ সময় চুয়াডাঙ্গা থেকে আলমডাঙ্গামুখী একটি মোটরসাইকেল চালককে কাগজপত্র চেকিংয়ের জন্য দাড় করান ট্রাফিক সার্জেন্ট মৃত্যুঞ্জয়।

মোটরসাইকল থামাতেই চালক সিআইডি কনস্টেবল অসীম ভট্টচার্যকে চিনে ফেলে পুলিশ। এরপর তাকে গ্রেপ্তার করতে গেলে তিনি দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। পুলিশ তার পিছু নিয়ে দীর্ঘ সময় পর তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। গ্রেপ্তারের পর অসীম অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়।

চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কানাই লাল সরকার জানান, অন্যায় যেই করুক শাস্তি তাকে পেতেই হবে। অসীমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

উল্লেখ্য আলমডাঙ্গা উপজেলা শহরের মাদ্রাসাপাড়ায় ভাড়া বাড়িতে থাকতেন অসীম ও তার স্ত্রী ফাল্গুনী। পারিবারিক বিরোধের কারণে নিজেদের মধ্যে প্রতিদিনই কোন্দল হতো তাদের। গত শনিবার ভোরে শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে স্ত্রী ফাল্গুনীকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করেন সিআইডি কনস্টেবল অসীম ভট্টচার্য।

এ সময় ফাল্গুনীর মা শেফালী অধিকারী ও শ্যালক আনন্দ অধিকারী ছুটে গিয়ে অসীমকে থামানোর চেষ্টা করলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করেন অসীম। এক পর্যায়ে জামাই অসীম ভট্টচার্যর হাতে নৃশংসভাবে খুন হন শাশুড়ি শেফালী অধিকারী। গুরুতর আহত হন স্ত্রী ফাল্গুনী অধিকারী ও শ্যালক আনন্দ অধিকারী।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত