ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ০৬ জুলাই ২০১৯, ১৩:৩৬

প্রিন্ট

‘স্বামীর দেওয়া বিষে’ প্রাণ গেলো স্ত্রীর

‘স্বামীর দেওয়া বিষে’ প্রাণ গেলো স্ত্রীর
প্রতীকী ছবি
বাগেরহাট প্রতিনিধি

যৌতুকের জন্য গৃহবধূ নাজমাকে নির্যাতন করে মুখে বিষ ঢেলে দেওয়ার ১৫ দিন পর তার মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবারের অভিযোগ। বৃহস্পতিবার রাতে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন। শনিবার তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

নিহত নাজমা খাতুন ফকিরহাট উপজেলার দোহাজারি এলাকার হারুন শেখের মেয়ে এবং রূপসা থানার সল্পবাহিরদিয়া এলাকার মোস্তফা কামালের স্ত্রী।

ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন পালাতক রয়েছে।

নিহতের পরিবারের দাবি, ২০ জুন রাতে মোস্তফা যৌতুকের জন্য নাজমাকে পিটিয়ে আহত করে। পরে নাজমার মুখে বিষ ঢেলে হত্যার চেষ্টা করে। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে কাজদিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফেলে রেখে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে নাজমার পরিবারের লোকজন তাকে প্রথমে ফকিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে ১৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর বৃহস্পতিবার রাতে তিনি মারা যান।

এলাকাবাসী জানান, দুই বছর আগে রূপসা থানার কাজদিয়ার সল্পবাহিরদিয়া এলাকার মাঈন উদ্দিনের ছেলে মোস্তফা কামালের সঙ্গে পারিবারিকভাবে নাজমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে নাজমা ওপর নির্যাতন করে আসছিল তার স্বামী মোস্তফা কামাল। বিয়ের এক বছর পর তাদের একটি মেয়ে হয়। সন্তানের কথা চিন্তা করে নাজমা স্বামীর নির্যাতন সহ্য করেও ওই সংসারে ছিলেন।

ফকিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়ের করতে হলে রূপসা থানাতে করতে হবে।

এনএইচ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত