ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬ অাপডেট : ৪ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১২ জুলাই ২০১৯, ১৮:১৮

প্রিন্ট

পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

পাঁচ দিনের ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের নিম্নাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। তবে ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে সুরমা নদীর পানি। জেলা শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া সুরমা নদীর পানি শুক্রবার সকাল ৯টায় ৮৭সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

গত ২৪ ঘণ্টা ১৭৫ মিলি মিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। প্লাবিত রয়েছে জেলা সদর, বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর, জামালগঞ্জ, দোয়ারাবাজার ও ধর্মপাশা উপজেলার নিম্নাঞ্চলের কয়েক শতাধিক গ্রাম। এসব উপজেলায় বেশির ভাগ সড়ক পানিতে ডুবে গেছে। নিচু এলাকার ঘরবাড়িতে বন্যার পানি ঢুকে পড়েছে।

এছাড়াও জেলার প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ২৩৮ টি প্লাবিত হয়েছে। এরমধ্যে ১৮৮ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান স্থগিত করেছে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এই সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ থাকবে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এই নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সব কয়টি স্কুলকে আশ্রয়কেন্দ্র ঘোষণা হয়েছে। এছাড়াও জেলায় সরকারিভাবে ১০টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

জেলা ত্রাণ ও পুণর্বাসন কর্মকর্তা ফরিদুল হক বলেন, তাহিরপুর, জামালগঞ্জ, বিশ্বম্ভরপুর, দোয়ারা এবং সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় বন্যার্তদের মধ্যে বণ্ঠনের জন্য বৃহস্পতিবার ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা নগদ দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল আহাদ জানান, ৬ টি উপজেলার ১২ হাজার ৮০০ ঘরবাড়িতে বন্যার পানি ঢুকেছে। এতে ৬৬ হাজার লোক পানিবন্দি। বন্যার্তদের প্রশাসন ৩ লাখ টাকা, ৩০০ মেট্রিকটন চাল ও শুকনো খাবার দিয়েছে।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বক্কর সিদ্দিক ভুইয়া জানান, সুনামগঞ্জের ষোলঘর পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি বিপদ সীমার ৮৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close