ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬ আপডেট : ১০ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৪ আগস্ট ২০১৯, ২২:০৫

প্রিন্ট

বঙ্গবন্ধু হত্যায় প্রথম প্রতিবাদ মিছিল হয় কিশোরগঞ্জে

বঙ্গবন্ধু হত্যায় প্রথম প্রতিবাদ মিছিল হয় কিশোরগঞ্জে
কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রথম প্রতিবাদ হয়েছিল কিশোরগঞ্জে। সারাদেশে ওই দিন ভোরে নেমে আসে ভয়াবহ নীরবতা। সেইদিন এ নীরবতা ভেঙে রাজপথ প্রকম্পিত করেছিল কিশোরগঞ্জের সাহসী তরুণ সৈনিকেরা।

শহরের গৌরাঙ্গ বাজার এলাকায় ছাত্র ইউনিয়ন কার্যালয় থেকে ক’জন ছাত্র-যুবা রাজপথে মিছিল করে এ হত্যার প্রথম প্রতিবাদ করেছিল। মিছিলের স্লোগা ছিল ‘মুজিব হত্যার পরিণাম-বাংলা হবে ভিয়েতনাম’, ‘মুজিব হত্যার বদলা নেবো বাংলাদেশের মাটিতে’, ‘এক মুজিবের রক্ত থেকে লক্ষ মুজিব জন্ম নিবে’, ‘ডালিমের ঘোষণা মানি না-মানবো না’। এ মিছিল সাড়া শহরকে আন্দোলিত করে। এ মিছিলটি শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে ফের ছাত্র ইউনিয়ন কার্যালয়ে এসে মিলিত হয়।

বেতারে এ হত্যার খবর প্রচারের সঙ্গে সঙ্গেই শহরের কয়েকজন ছাত্র- যুবক এসে একত্রিত হন স্টেশন রোডের রঙমহল সিনেমা হল প্রাঙ্গণে। সিদ্ধান্ত নেন, তারা নীরবে এ হত্যাকে মেনে নেবেন না। স্লোগানে প্রতিবাদ করবেন। সিনেমা হল-সংলগ্ন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের অফিস থেকে এ তরুণদের নেতৃত্বে প্রতিবাদ মিছিলটি সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১০টার দিকে রাজপথে বেরিয়ে পড়ে। এর পর পুরান থানা, একরামপুর, বড়বাজার, ঈশাখাঁ রোড, আখড়াবাজার, কালীবাড়ি মোড় হয়ে থানার সামনে দিয়ে আবারও রঙমহল সিনেমা হলে এসে শেষ হয়। পরে পুলিশি ধাওয়ায় ছাত্র-জনতা ছত্রভঙ্গ হয়।

সেদিন মুজিব হত্যার প্রথম প্রতিবাদ মিছিলে যারা অংশ নিয়েছিলেন, তারা হলেন-প্রয়াত আমিরুল ইসলাম, সাইদুর রহমান মানিক, ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন, অশোক সরকার, এনামুল হক ইদ্রিস, আলী আসগর স্বপন, হাবিবুর রহমান মুক্ত, গোলাম হায়দার চৌধুরী, পীযুষ কান্তি সরকার, অলক ভৌমিক, অরুণ কুমার রাউত, প্রয়াত নির্মলেন্দু চক্রবর্তী, প্রয়াত সেকান্দর আলী ভূঞা, হালিম দাদ খান রেজওয়ান, প্রয়াত আব্দুল আহাদ, রফিকউদ্দিন পনির, গোপাল দাস, প্রয়াত আকবর হোসেন খান, নূরুল হোসেন সবুজ, প্রয়াত সৈয়দ লিয়াকত আলী বুলবুলসহ অনেকে।

বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদে প্রথম মিছিলকারী ভুপেন্দ্র ভৌমিক দোলন বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর থমথমে পরিবেশ, স্থম্ভিত রাজধানীসহ সারা দেশের মানুষ। শত ইচ্ছাও সেনাচৌকি পেরিয়ে এমন অন্যায়ের প্রতিবাদে রাজপথে নামতে পারেনি জনগণ। এমন বেদনার খবর রেডিওতে ছড়িয়ে পড়ে ১৫ আগস্ট সকালে। আর প্রতিবাদী হয় কিশোরগঞ্জের একগুচ্ছ তরুণ। শুরু করে মিছিল। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার প্রতিবাদে প্রথম প্রতিবাদী মিছিল।

১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের পর রাজপথে মিছিল করা ছিল দুঃসাহসের ব্যাপার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তারা বসে থাকতে পারেননি। রাজপথে মিছিল করে নিজেরা হয়ে গেছেন ইতিহাসের অবিচ্ছেদ্য অংশ। গ্রেফতারি পরোয়ানা, হুলিয়া নিয়ে পালিয়ে বেড়িয়েছেন দিনের পর দিন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর কিশোরগঞ্জে প্রতিবাদ মিছিলটি ছিল তাৎক্ষণিক ও স্বতঃস্ফূর্ত। সেই ঐতিহাসিক প্রতিবাদ মিছিলে অংশগ্রহণকারীদের অনেকেই আজ বেঁচে নেই।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
close
close