ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬ আপডেট : ৯ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:৫২

প্রিন্ট

জরুরি সেবায় কল দিয়ে বোনকে ধর্ষণ থেকে বাঁচালো ভাই

জরুরি সেবায় কল দিয়ে বোনকে ধর্ষণ থেকে বাঁচালো ভাই
কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল দিয়ে এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের হাত থেকে রক্ষা করেছেন তার ভাই। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কিশোরগঞ্জের ভৈরবে এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় ভৈরব থানায় একটি ধর্ষণ চেষ্টার মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তার হৃদয় মিয়াকে (২৩) বুধবার কিশোরগঞ্জ আদালতে সোপর্দ করা হয়।

ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, ‘৯৯৯’ থেকে থানায় ডিউটিরত পুলিশকে ঘটনাটি জানানো হয়। থানা থেকে বিষয়টি আমাকে জানালে দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে ওই বখাটেকে গ্রেপ্তার করি।

তিনি জানান, এ ঘটনায় তরুণীর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা হয়েছে। তদন্ত করে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা যায়, ওই তরুণী স্থানীয় একটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। তার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা।

ভুক্তভোগীর পরিবার জানিয়েছে, ওই কলেজছাত্রীর মা-বাবা মারা গেছেন, ভাই থাকেন ঢাকায়। এ অবস্থায় পরিবারের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে পাশের বাড়ির বখাটে হৃদয় মিয়া দীর্ঘদিন ধরে তাকে উত্যক্ত করে আসছিল। কলেজে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই অশ্লীল কথাবার্তাসহ বিরক্ত করত। এ নিয়ে ছাত্রীটি বখাটের পরিবার ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে একাধিকবার নালিশ করেন। কিন্তু কোনো প্রতিকার না পেয়ে কয়েক মাস আগে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দেন। এতে কিছুদিন চুপচাপ ছিল হৃদয়।

পরবর্তীতে আবারো উত্যক্ত করা শুরু করলে ছাত্রীটি ভৈরব থানায় একটি জিডি করেন। এরপর মঙ্গলবার তাকে বাসায় একা পেয়ে হৃদয় ভিতরে ঢুকে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। এ সময় ছাত্রীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে এসে মোবাইলে ঢাকায় তার ভাইকে জানায়। তার ভাই ৯৯৯ এ কল করে পুলিশের সহযোগিতা চান। ৯৯৯ থেকে খবর পেয়ে ভৈরব থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে বখাটে হৃদয়কে গ্রেপ্তার করে।

বাংলাদেশ জার্নাল/জেডআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত