ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:৩০

প্রিন্ট

২৫ কিলোমিটার রাস্তায় ১০ লাখ মানুষের স্বস্তি

২৫ কিলোমিটার রাস্তায় ১০ লাখ মানুষের স্বস্তি
পাবনা প্রতিনিধি

এক সময় পাবনার চাটমোহর-ভাঙ্গুড়া-ফরিদপুর হয়ে বাঘাবাড়ী পর্যন্ত বিস্তৃত ২৫ কিলোমিটার আঞ্চলিক মহাসড়কটি ছিল মরণফাঁদ। দুর্ঘটনা এবং বাস-ট্রাক-সিএনজি-অটো রাস্তার মধ্যে খাদে আটকে থাকা ছিল নিত্য দিনের ঘটনা। প্রতিদিনই এই রাস্তার কোথাও না কোথাও ঘটতো দুর্ঘটনা। বন্ধ হয়ে যেতো চান চলাচল। মানুষের দুর্ভোগ ছিল নিত্যদিনের সঙ্গী। দীর্ঘদিন চরম দুভোর্গে দিন কাটাচ্ছিল এই অঞ্চলের মানুষজন। অবশেষে সেই সমস্যার দিন শেষ হতে চলেছে। এখন বদলে গেছে দৃশ্যেপট।

২৭ কোটি ৩২ লক্ষ টাকা ব্যয়ে চাটমোহর থেকে ফরিদপুরের ডেমড়া পর্যন্ত ২৫ কিলোমিটার সড়কের বিটুমিন কার্পেটিং কাজ শেষ হয়েছে। এখন চলছে রি-চেকিংয়ের কাজ। এই রাস্তা সংস্কারের ফলে এই অঞ্চলের ১০ লক্ষ মানুষ এর সুফল পাবে বলে সড়ক বিভাগ জানিয়েছে।

পাবনা সড়ক বিভাগ সুত্র জানায়, এলাকার মানুষের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে পাবনার চাটমোহর-ভাঙ্গুড়া-ফরিদপুর হয়ে বাঘাবাড়ী পর্যন্ত ২৫ কিলোমিটার আঞ্চলিক মহাসড়ক সংস্কারের সংস্কার কাজ হাতে নেওয়া হয়। ইতিমধ্যে কাজটি শেষ হয়েছে। এখন চলছে রি-চেকিং। কোথায় কোন গ্যাপ ও ঘাটতি আছে কিনা তা দেখা হচ্ছে।

ফদিরপুরের ডেমরা এলাকার বাসিন্দা মোকারম হোসেন বলেন, এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য আমরা দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে আসছিলাম। অবশেষে রাস্তাটি সংস্কার হয়েছে। তিনি বলেন, এত সুন্দর রাস্তা হয়েছে যা আমাদের কল্পনার বাইরে।

ভাঙ্গুড়ার বাসিন্দা আব্দুর রহিম বলেন, পাবনার টেবুনিয়া চাটমোহর থেকে বাঘাবাড়ী পর্যন্ত সড়কের যে উন্নয়ন হয়েছে, তা অকল্পনীয়। কাজও খুব সুন্দর হয়েছে।

পাবনার ট্রাক চালক ইকবাল হোসেন শেখ বলেন, রাস্তা ভাঙাচোরার কারণে আগে চাটমোহর টু বাঘাবাড়ী রাস্তায় দিয়ে শহরে আসতে ভয় পেতাম। এখন সুন্দর রাস্তা তৈরি হয়েছে।

প্রকল্পের ঠিকাদার ধ্রুব কন্সট্রাকশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী বলেন, এলাকার মানুষের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে উন্নত এবং টেকসই মালামাল ব্যবহার করে এই রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। সড়ক বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মপক্ষ এবং স্থানীয়রা রাস্তার কাজ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এই রাস্তার সুফল মানুষজন পেতে শুরু করেছে।

পাবনা সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সমীরণ রায় বলেন, শুধু বিটুমিনাস সারফেসিং নয়, এই রাস্তার দুই দিকে সামান্য ঢালু করা হয়েছে। ফলে রাস্তাটিতে পানি জমে থাকবে না। রাস্তাটি টেকসই হবে। এই সড়কটির সংস্কার ভালো মানের হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ভাঙ্গুড়া উপজেলার ভেড়ামারা নামক স্থানে বৃষ্টির কারণে রাস্তার পাশে এক ফুটের মত সামান্য অংশ দেবে গিয়েছিল। পরে রাস্তা রি- চেকিংয়ের সময় ঠিকাদার তা সংস্কার করে ঠিক করে দেন।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত