ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ অক্টোবর ২০১৯, ২০:০৪

প্রিন্ট

ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ

ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের সায়দাবাদ এলাকার কড্ডায় মোড়ে ল্যাব এইচ হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে একটি ক্লিনিকে গত ৫ অক্টোবর অস্ত্রোপচার করার ১৫ দিন পর রাশিদা বেগম (৩০) নামে এক প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালের অব্যবস্থাপনা ও অপারেশনে চিকিৎসকের ত্রুটির কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

রোববার রাত সাড়ে ১২টার দিকে রাশিদার মৃত্যু হয়। তিনি সদর উপজেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের পঞ্চসোনা গ্রামের মনিরুল ইসলামের স্ত্রী।

মৃত রাশিদা বেগমের ভাই ও ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি হারিজ আলী জানান, গত ৫ অক্টোবর প্রসব ব্যথা শুরু হলে রাশিদাকে কড্ডার মোড় এলাকায় ল্যাব এইচ হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। ওইদিন বিকেল ৩টার দিকে সিজারিয়ান অপারেশন করেন কামারখন্দ ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. সুমনুল হক সজীব।

অপারেশনের পর নবজাতক সুস্থ থাকলেও প্রসূতি ধীরে ধীরে অসুস্থ হতে থাকে। চিকিৎসক তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। বগুড়া শজিমেকের আইসিইউতে ৬ দিন চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে ঢাকার হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল ও পরে লালমাটিয়ায় রয়েল হাসপাতাল এবং সবশেষে মিরপুরের ডেলটা হাসপাতলে নেয়া হয়।

এসব হাসপাতালের চিকিৎসকরা রোগীকে ফিরিয়ে দিলে শুক্রবার বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। মুমূর্ষু অবস্থায় তিন দিন পর রোববার রাতে মারা যান রাশিদা।

তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন হাসপাতালের চিকিৎসরা রোগীর পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানিয়েছেন, অপারেশনের সময় অতিরিক্ত স্থান এবং কিডনির একটি শিরা কেটে ফেলা হয়েছে। এতে রক্ত সঞ্চালন প্রক্রিয়া ব্যাহত হওয়ায় রোগী শারীরিক অবস্থা অবনতির দিকে যাচ্ছে।

ভুল অপারেশনের কারণেই রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেন মৃতের স্বামী মনিরুল ইসলাম। তিনি আরো অভিযোগ করেন, ল্যাব এইচ হাসপাতালে অপারেশনের প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিও ছিল না। তারপরও অপারেশনের ঝুঁকি নিয়েছেন চিকিৎসক ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান রোগীর স্বজনেরা।

এ বিষয়ে ডা. এমএম সুমনুল হক সজীব বলেন, অপারেশনে কোনো ত্রুটি ছিল না। সফলভাবেই বাচ্চা প্রসব করানো হয়েছে এবং নবজতাক সুস্থ রয়েছে। তবে রোগী আগে থেকেই দুর্বল ও রোগাক্রান্ত ছিলেন।

ল্যাব এইচ হাসপাতালের পরিচালক ফিরোজ মাহমুদ জানান, রোগীর স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করছি।

সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ হোসেন বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত