ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ১৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০১:৪২

প্রিন্ট

ইলিশ শিকার: ৩ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত

ইলিশ শিকার: ৩ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত
বরিশাল প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর বাউফলে ইলিশ শিকার করতে গিয়ে আটক হওয়া বরিশাল মেট্রোপলিটন বন্দর থানার ৩ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে বরখাস্তকৃত পুলিশ সদস্যরা হচ্ছেন, এসআই আনিসুর রহমান, কনস্টেবল মোহম্মদ আলী ও জুলফিকার আলী। তাদের বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বন্দর থানার ওসি।

বন্দর থানার ওসি আনোয়ার তালুকদার জানান, কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া পটুয়াখালীর জলসিমায় ইলিশ শিকারে যায় বরখাস্তকৃতরা। রোববার বিকেলে তেঁতুলিয়া নদীর ধূলিয়া পয়েন্ট থেকে কারেন্ট জাল ও ইঞ্জিনচালিত স্টিলের ট্রলারসহ ওই তিন পুলিশকে আটক করা হলেও পরবর্তীতে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। ঘটনাটি জানার পর সোমবার বিকেলে ওই তিনজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

বাউফল উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জসীম উদ্দিন বলেন, বরিশাল মেট্রোপলিটন বন্দর থানার দুই পুলিশ সদস্যকে আটক করা হয়েছিল। আটক হওয়া পুলিশ সদস্যদের নৌপথে নিয়ে আসার সময় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেয়ার কথা বলে কালাইয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. সোহাগের সঙ্গে ডাঙায় নামেন। এরপর তারা বোটে উঠতে গড়িমসি করলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে পুলিশ সদস্যদের কালাইয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জের কাছে রেখে চলে আসি। বাউফল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুভ্রা দাস বলেন, ডিসি স্যারকে জানিয়েই ওই দুই পুলিশ সদস্যকে নৌ পুলিশে নিকট হস্তান্তর করা হয়। যেহেতু তারা একটি বাহিনীর সদস্য তাই তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কালাইয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সোহাগ বলেন, বরিশাল অঞ্চলের নৌ পুলিশ সুপার মো. কফিল উদ্দিন স্যার এবং বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার শাহাবুদ্দিন খান স্যারের নির্দেশে বরিশাল বন্দর থানার ওসি নিজে এসে আটক ওই দুই পুলিশ সদস্যকে নিয়ে যান।

বরিশাল বন্দর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন তালুকদার বলেন, আমি নিজে যাইনি কিন্তু আমি অফিসার পাঠিয়েছিলাম।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত