ঢাকা, রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬ আপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৯:২৯

প্রিন্ট

৪৫ টাকা কেজি পেঁয়াজের মান নিয়ে প্রশ্ন

৪৫ টাকা কেজি পেঁয়াজের মান নিয়ে প্রশ্ন
অনলাইন ডেস্ক

দেশের বিভিন্ন স্থানের মতো যশোরে ৪৫ টাকায় কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করেছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। সোমবার দুপুরে যশোর দড়াটানা ভৈরব চত্বরে ট্রাকে করে পেঁয়াজ বিক্রি করতে দেখা গেছে। প্রথম দিনেই ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ কিনতে লম্বা সারিতে হিশমিশ খেতে হয়েছে ক্রেতাদের। তবে সাশ্রয়ী মূল্যে এই পেঁয়াজের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ক্রেতারা।

সূত্রে জানা গেছে, যশোরে টিসিবি তুরস্ক থেকে আমদানি করা সাদা পেঁয়াজ তিন হাজার কেজি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। প্রতিদিন এক হাজার করে তিন দিনে তিন হাজার কেজি বিক্রি করা হবে। প্রতিক্রেতা ৪৫ টাকা দরে এক কেজি পেঁয়াজ ক্রয় করতে পারবেন।

পেঁয়াজ কিনতে আসা ফারুক হোসেন জানান, টিসিবি প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৪৫ টাকায় বিক্রি করলেও তা অনেক নিম্নমানের। কেজি পেঁয়াজে দুই শ’ থেকে তিন শ’ গ্রাম মতো নষ্ট রয়েছে। আবার পেঁয়াজের মান ভালো না হওয়ায় এ সময় বেশ কিছু ক্রেতাদের অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে ফিরে যেতে দেখা যায়।

ময়না বেগম নামে এক ক্রেতা জানান, বাজারে এসেছিলাম। দেখি দড়াটানায় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। দুই ঘন্টা দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে অবশেষে এক কেঁজি পেঁয়াজ পেলাম। তাতে প্রায় আধাকেজি পেঁয়াজ নষ্ট রয়েছে। ‘পাল্টিয়ে দিতে বললে বলে আপনাকে পেঁয়াজ কিনতে হবে না’

ক্রেতাদের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে বিক্রেতা আক্তার হোসেন বলেন ‘আমাদের যে পেঁয়াজ দেওয়া হয়েছে আমরা তাই বিক্রি করছি’।

টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি করা মেসার্স মাহফুজ ট্রেডিং এর পরিচালক মাহফুজুর রহমান জানান, যশোরে তিন হাজার কেজি পেঁয়াজ বিক্রির বরাদ্দ পেয়েছি। পেঁয়াজের বস্তার ভেতরে যেমন পেঁয়াজ পেয়েছি , সেটাই বিক্রি করছি। যদি নষ্ট থাকে, তাহলে আমাদের কিছু করার নেই।

টিসিবির খুলনা বিভাগীয় কর্মকর্তা রবিউল মোর্শেদ জানান, যশোরে তিন হাজার কেজি পেঁয়াজ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ৪৫ টাকা দরে তিন দিনে তিন হাজার কেজি বিক্রি হবে। ক্রেতাদের অভিযোগের বিষয়ে জানতে তিনি বলেন, ‘যার খাইতে ইচ্ছা করবে তিনিই খাইবে।’

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত