ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৩ জুন ২০১৯, ১০:০৮

প্রিন্ট

পুলিশের বিরুদ্ধে চিকিৎসকসহ তিনজনেক মারধরের অভিযোগ

পুলিশের বিরুদ্ধে চিকিৎসকসহ তিনজনেক মারধরের অভিযোগ
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

চাঁপাইনবাবগঞ্জে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে পুলিশ সদস্যের স্ত্রীর গর্ভের বাচ্চার অস্ত্রপচারের মাধ্যমে অপসারণকে কেন্দ্র করে, দুই চিকিৎসকসহ এক কর্মচারীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে।

বুধবার রাতে এই মারধরের ঘটনা ঘটে।

ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, গোয়েন্দা পুলিশ সদস্য খাদেমুল ইসলামের স্ত্রী গর্ভে মৃত সন্তান নিয়ে বুধবার জেলা শহরের সেবা ক্লিনিকে ভর্তি হন। পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে অস্ত্রপচারের মাধ্যমে মৃত বাচ্চা অপসারণ করা হয়।

এ ঘটনার পর গোয়েন্দা পুলিশের সাত-আটজন সদস্য ওই ক্লিনিকে গিয়ে অসাদাচরণ শুরু করে। এক পর্যায়ে চিকিৎসক ও কর্মচারীর সঙ্গে পুলিশের মারধরের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও মারধরের ঘটনায় আহত ওই ক্লিনিকের স্টাফ নূর ইসলাম বাবু বাংলাদেশ জার্নালকে জানান, মারধরের এক পর্যায়ে চিকিৎসক ইসমাইল হোসেনের র্শাট ছিড়ে যায়। এ সময় ক্লিনিকে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। উদ্ভূত পরিস্থিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুব আলম খান ও চিকিৎসক নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

মারধরের ঘটনার স্বীকার দুই চিকিৎসক ডা. ময়েজ উদ্দিন ও ডা. ইসমাইল হোসেন এ ব্যাপারে জানান, উভয়ে বসে সমঝোতার মাধ্যমে সমাধান করা হয়েছে।

পরে উভয়পক্ষ বৈঠকে বসে সমঝোতা শেষে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বাংলাদেশ জার্নালকে জানান, ভুল বুঝাবুঝির কারণেই এমন উদ্ভুত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/টিপিবি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত