ঢাকা, শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬ অাপডেট : ৪ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:২৭

প্রিন্ট

ধানের শীষ চান কামাল-মান্নারা , সিদ্ধান্তহীনতায় বি. চৌধুরী

‘ধানের শীষে’ ঐক্যফ্রন্ট, সিদ্ধান্তহীনতায় যুক্তফ্রন্ট
নিজস্ব প্রতিবেদক

জোটবদ্ধভাবে যেসব রাজনৈতিক দল ভোট করবে তাদের প্রতীক কি হবে সেটি জানার অপেক্ষায় রয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সবগুলো জোট এই তথ্য জানানোর পর সংশ্লিষ্ট জোটের আসনভিত্তিক প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ করবে নির্বাচন আয়োজনকারী এই সংস্থাটি। এরই মধ্যে ড. কামাল হোসেন নেতৃত্বাধীন জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট তাদের জোটের অন্যতম শরিক বিএনপির প্রতীক ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কথা নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছে। তবে জোট সম্প্রসারনের কথা বলে ড. বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন জোট যুক্তফ্রন্ট এ বিষয়টি জানাতে ইসির কাছে আরও ১০দিন সময় চেয়েছে।

ইসি সূত্রে জানা গেছে, সরকারি দল আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন জোটের বাইরে থাকা এই দুটি নির্বাচনী জোট বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠিয়েছে। নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে ৩০০ আসনে নির্বাচন করার বিষয়টি জানিয়ে ঐক্যফ্রন্টের প্রতিনিধি দল সিইসির দফতরে যান। ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতা ও গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলটি তাদের প্রতীক হিসেবে বিএনপির প্রতীক ব্যবহারের সিদ্ধান্তের কথা সিইসিকে অবহিত করেন।

এর আগে বৃস্পতিবার দুপুরে মতিঝিলে ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে বৈঠক করে প্রতীক বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় ঐক্যফ্রন্ট। বৈঠক শেষে জোটের শরিক দল নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না সাংবাদিকদের জানান, জোটের সব দলের প্রার্থীরা ধানের শীষ প্রতীকেই নির্বাচনে অংশ নেবেন।

এদিকে নির্বাচনী জোটের প্রতীক বরাদ্দের সময়সীমা ১০ দিন বাড়িয়ে ২৬ নভেম্বর করার অনুরোধ জানিয়ে সিইসিকে চিঠি দিয়েছেন যুক্তফ্রন্ট চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ড. এ. কিউ. এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী। বি. চৌধুরী স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বৃহস্পতিবার ইসিতে পৌঁছে দেন বিকল্পধারার সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার ওমর ফারুক। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুর রউফ মান্নান, বংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভূইয়া।

চিঠিতে বলা হয়, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূন:তফসিলের পর জোটের প্রতীক বরাদ্দ সংক্রান্ত বিষয়টি অবহিত করার সময়সীমা ১৫ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। যুক্তফ্রন্টসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের দাবির প্রেক্ষিতে নির্বাচন এক সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়ে পুন:তফসিল করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। যুক্তফ্রন্ট এখনো জোট সম্প্রসারণের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে, তাই নির্বাচনী জোটের প্রতীক বরাদ্দের ব্যাপারে আপনাদের দেয়া সময়সীমা বৃদ্ধি করা যৌক্তিক ও প্রয়োজন। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে এবং জোটভূক্ত দলসমূহের সম্প্রসারণের কার্যক্রম নির্বিঘ্নে শেষ করতে নির্বাচনী জোটের প্রতীক বরাদ্দের সময়সীমা ১০ দিন বাড়িয়ে ২৬ নভেম্বর পুন:নির্ধারনের জন্য আপনাকে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।

উল্লেখ্য, গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের (আরপিও) ধারা-২০-এর (১)-এর (এ) বিধান অনুযায়ী, নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে ইচ্ছুক একাধিক নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল মিলে নির্বাচনী জোট গঠন করলে এ জোটের যেকোনো একটি দলের প্রতীক জোটভুক্ত প্রার্থীদের বরাদ্দ করা যাবে। এ ধরনের প্রতীক পেতে হলে জোটকে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার তিনদিনের মধ্যে ইসি বরাবর আবেদন করতে হবে।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত