ঢাকা, সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

প্রকাশ : ২৪ জুন ২০২১, ২০:০০

প্রিন্ট

মা-বাবা ও বোনকে হত্যার দায় স্বীকার মেহজাবিনের

মা-বাবা ও বোনকে হত্যার দায় স্বীকার মেহজাবিনের
ছবি- সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর কদমতলীতে মা-বাবা ও বোনকে হত্যায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন মেহজাবিন ইসলাম মুন। ঢাকা মহানগর হাকিম বেগম ইয়াসমিন আরা তার জবানবন্দি গ্রহণ করে কারাগারে পাঠান।

চার দিনের রিমান্ড শেষে মেহজাবিনকে আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কদমতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) জাকির হোসাইন। তিনি আদালতকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন।

তিন খুনের এই ঘটনায় গত ২০ জুন মেহজামিনের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। পরদিন ২১ জুন তার স্বামী শফিকুল ইসলাম অরণ্যরও তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। শফিকুল বর্তমানে রিমান্ডে আছেন।

মামলা থেকে জানা যায়, মেহজাবিনের বাবা মাসুদ রানা ২৬ বছর ধরে সৌদি প্রবাসী ছিলেন। মাঝে মধ্যে তিনি দেশে আসতেন। মাসুদ রানা তার মেয়ে মেহজাবিন ইসলাম মুনকে শফিকুল ইসলাম অরন্যর সঙ্গে বিয়ে দেন। এরপর থেকে মেহজাবিন সম্পত্তি লিখে দেয়ার জন্য তার মা মৌসুমি ইসলামকে বিভিন্নভাবে চাপ দিতেন।

সম্পত্তি লিখে না দেয়ায় মেহজাবিন ও তার স্বামী শফিকুল ছয় মাস আগে থেকে মাসুদ রানা, তার স্ত্রী মৌসুমি এবং মেয়ে জান্নাতুল ইসলাম মোহনীকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। মাসুদ রানা তিন মাস আগে সৌদি আরব থেকে দেশে আসেন। মেহজাবিন ও শফিকুল গত ১৮ জুন বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মাসুদ রানার বাসায় আসেন। রাত ৯টা থেকে বিভিন্ন সময়ে চা-কপি ও পানির সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে মাসুদ রানা, মৌসুমি ইসলাম এবং মোহনীকে তা খাওয়ানো হয়। এতে সবাই অচেতন হলে আসামিরা গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে একে একে সবার মৃত্যু নিশ্চিত করে।

এ ঘটনায় মাসুদ রানার বড় ভাই সাখাওয়াত হোসেন মেহজাবিন ও শফিকুলকে আসামি করে কদমতলী থানায় মামলা করেন।

আরো পড়ুন

মা-বাবা-বোনকে হত্যা: জিজ্ঞাসাবাদে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন মেহজাবিন

৬ মাস আগে মা-বাবা-বোনকে হত্যার পরিকল্পনা করেন মেহজাবিন

মা-বাবা-বোন হত্যায় অনুশোচনা নেই মেহজাবিনের

৯৯৯-এ ফোন করে মেহজাবিন বলেন, আসেন আমি হত্যা করেছি

মা-বাবা-বোনকে হত্যা: মেহজাবিন ৪ দিনের রিমান্ডে

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত