ঢাকা, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ আপডেট : ১০ মিনিট আগে
শিরোনাম

পুঁজিবাজারে বড় ‍উল্লম্ফন, একদিনেই সূচক ১২৩ পয়েন্টের বেশি

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ০৪ জুলাই ২০২৪, ২০:৫৯

পুঁজিবাজারে বড় ‍উল্লম্ফন, একদিনেই সূচক ১২৩ পয়েন্টের বেশি
ফাইল ছবি

দীর্ঘদিন পর দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ডিএসইতে সূচকে বড় ‍উল্লম্ফন হয়েছে। একদিনেই প্রধান সূচক বেড়েছে ১২৩ পয়েন্টের বেশি।

এর আগে একদিনে সূচকে ১৪৩ পয়েন্ট যোগ হয়েছিল ২০২১ সালের ১ ডিসেম্বর। এরপর সূচক একদিনে এতটা বাড়েনি।

অল্প অল্প করে সূচক ইতিবাচক থাকার মধ্যে বৃহস্পতিবার লেনদেনের শুরু থেকেই সূচক বাড়তে থাকে। যা এক পর্যায়ে ১৩১ পয়েন্ট পর্যন্ত বাড়ে। শেষের দিকে সমন্বয়ের জন্য শেয়ার বিক্রির পরিমাণ বাড়লে ডিএসইএক্স ১২৩ পয়েন্ট বেড়ে দিন শেষ হয়।

দিনভর সূচকের উত্থান প্রবণতা বিনিয়োগকারীদের আশাবাদী করলে বিক্রির চেয়ে শেয়ার কেনার প্রবণতা বাড়লে তা সূচককে ঊর্ধ্বমুখী রাখে; লেনদেন বাড়াতেও যা ভূমিকা রাখে।

এদিন দিন শেষে ডিএসইএক্সের অবস্থান ছিল ৫ হাজার ৪৯৭ পয়েন্টে। গত ১৬ মে এর পরে এটিই সূচকের সর্বোচ্চ অবস্থান। সেদিন সূচক উঠেছিল ৫ হাজার ৫১৭ পয়েন্টে। এর পরে মাঝে ১১ জুন সূচক ৫ হাজার ৭০ পয়েন্টে নেমে এসেছিল।

ডিএসইতে একই সঙ্গে এদিন লেনদেনও গতি পায়। দিন শেষে ৭৭০ কোটি টাকার শেয়ার হাতবদল হয়। গত ১৩ মে এর পর এত পরিমাণ লেনদেন আর হয়নি। সেদিন লেনদেন হয়েছিল ৯৬৮ কোটি টাকার।

এ নিয়ে সদ্য শুরু হওয়া ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রথম তিন দিন ‍সূচক ইতিবাচক থাকল। টানা দরপতনের মধ্যে পুঁজিবাজারে এতে করে সূচক ফিরে পেল ১৬৯ পয়েন্ট।

নানা কারণে বেশ কিছু দিন থেকে দরপতনের বৃত্তে থাকা পুঁজিবাজারে মে ও জুন মাসে মন্দাভাব দেখা দেয়। নতুন করে মূলধনী মুনাফায় কর বসানোর প্রস্তাব ও পরিচালকদের শেয়ার হস্তান্তরে উৎসে কর বাড়ানোর খবরে আবার দরপতন শুরু হয়। কয়েকবছর পর অর্থমন্ত্রী বাজেটে ৫০ লাখ টাকার বেশি মুনাফার ওপর কর ফিরিয়ে আনেন।

একদিনে এত বড় উত্থানের কারণ হিসেবে সূচকের ‘বাউন্স ব্যাক’ মনে করছেন ডিএসই ব্রোকার্স অ্যসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ডিবিএ) সভাপতি সাইফুল ইসলাম।

তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, গত মে মাস থেকেই বাজেটের নানা প্রস্তাবনার কারণে ও তার আগ থেকেই সূচকে পতন হয়েছিল। পুরনো পতনের ধারা মিলিয়ে সূচক যত নেমেছিল, আর কত নামবে? এখন সেই হারানো সূচকের কাছে যেতে বাউন্স ব্যাক করেছে। এটা হবে আমরা বলে আসছিলাম।

তিনি বলেন, রিজার্ভ পরিস্থতি ভালো হওয়া, কয়েকটি প্রকল্পে বিদেশি বড় ঋণের খবর আছে অর্থনীতিতে। এরসঙ্গে কর ইস্যুর বিষয়টি নিষ্পত্তি হওয়ায় বিনিয়োগকারীরা বাজার থেকেই মুনাফা বের করতে নতুন বিনিয়োগ করছেন। এসব কিছুর প্রভাবে লেনদেন ও সূচক বেড়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমপি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত