ঢাকা, রোববার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৫ জুন ২০২০, ২১:৪৮

প্রিন্ট

শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণা

রাজনৈতিক ও শ্রমিক সংগঠনগুলো নিন্দা

রাজনৈতিক ও শ্রমিক সংগঠনগুলো নিন্দা
অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক

তৈরি পোশাক কারখানায় শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে দেশের রাজনৈতিক, শ্রমিক ও ছাত্র সংগঠনগুলো। একই সঙ্গে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণায় তাঁরা গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

শুক্রবার সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে শ্রমিক সংগঠনগুলো বলেছে, বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক আকস্মিকভাবে ঘোষণা করেছেন যে জুন মাসে শ্রমিক ছাঁটাই করা। অথচ সরকারের কাছে তারা শ্রমিক ছাঁটাই না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। এই ঘোষণা সেই অঙ্গীকারের বরখেলাপ।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি ও সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি এক বিবৃতিতে বলেছেন, বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হকের শ্রমিক ছাঁটাই বিষয়ক বক্তব্য রাজনৈতিক দুরভিসন্ধিমূলক ও উস্কানিমূলক।

তারা বলেন, বৈশ্বিক ও জাতীয় দুর্যোগের মধ্যে কীভাবে শিল্প কলকারখানা চলবে, শ্রমিকদের জীবিকা রক্ষা হবে তা নিয়ে দেশে সরকারসহ অর্থনীতিবিদদের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং সম্প্রদায়ও সচেতন। তারা ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

তারা আরও বলেন, সরকার শ্রমিকদের বেতনের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দিয়েছে। ইইউ ৪ হাজার ৯০০ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছে। বাতিল হওয়া রপ্তানি কার্যাদেশও অনেক ক্রেতা পুনর্বহাল করেছেন। এরকম পরিস্থিতিতে রুবানা হকের শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণা পরিস্থিতি ঘোলাটে করার রাজনৈতিক দুরভিসন্ধি ও উসকানি ছাড়া আর কিছুই না।

বিবৃতিতে জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের নেতারা বলেন, গার্মেন্টস শ্রমিকদের তিন মাসের বেতন পরিশোধ করার জন্য শুরুতেই সরকার পাঁচ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দিয়েছে। এই অর্থ নেওয়ার পরও তারা সব শ্রমিকদের পুরো মজুরি ও বোনাস দেয়নি।, শুধু তাই নয় প্রণোদনার অর্থ হাতিয়ে নিতে তারা কৌশল হিসেবে কারখানা চালু করার কথা বলে শ্রমিকদের দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে হঠাৎ করে ঢাকায় নিয়ে আসে এবং আবার পাঠিয়েও দেয়। অথচ তখন পরিবহন বন্ধ ছিল। এতে শ্রমিকেরা অবর্ণনীয় দুর্দশা ভোগ করেন। পাশাপাশি এর মধ্য দিয়ে তাদের স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে ফেলে দেওয়া হয়। নেতারা আরও বলেন, আর এখন বিদেশী সহযোগীদের কাছ থেকে সহযোগিতা আদায়ে শ্রমিকদের করোনা ভাইরাস সনাক্তে পিসিআর ল্যাব স্থাপন উদ্বোধন করা হচ্ছে এবং একইসঙ্গে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দেওয়া হচ্ছে।

পোশাক শিল্পে শ্রমিক ছাঁটাই নিয়ে বিজিএমইএ সভাপতির অন্যান্য বক্তব্য প্রত্যাহার করার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন। তাদের অভিযোগ, বিজিএমইএ সভাপতি পোশাক শিল্প রক্ষার জন্য কথা না বলে শুধু মালিকদের রক্ষার জন্য সরব হয়েছেন। কিন্তু শ্রমিক বাঁচলে শিল্পও বাঁচবে। শ্রমিকদের জীবন-জীবিকাকে চরম অনিশ্চয়তার মুখে ঠেলে দেওয়া হলে শিল্পও ধ্বংসের মুখে পড়বে, যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। বিজিএমইএর এই ঘোষণার প্রতিবাদে ৬ জুন গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র বেলা সাড়ে ১১টার সময় জাতীয় প্রেস ক্লাবের বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত