ঢাকা, সোমবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮ আপডেট : ১ মিনিট আগে

ড. রফিকুল ইসলামের মৃত্যুতে ঢাবি উপাচার্যের শোক

  ঢাবি প্রতিনিধি

প্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:৫৯

ড. রফিকুল ইসলামের মৃত্যুতে ঢাবি উপাচার্যের শোক
ড. রফিকুল ইসলাম ।। ছবি; সংগৃহীত
ঢাবি প্রতিনিধি

স্বাধীনতা পদক ও একুশে পদকপ্রাপ্ত জাতীয় অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম (৮৭) রাজধানীর একটি হাসপাতালে মঙ্গলবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

মঙ্গলবার এক শোকবাণীতে উপাচার্য বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক এবং বাংলা একাডেমির সভাপতি ড. রফিকুল ইসলাম ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন শিক্ষাবিদ এবং উপমহাদেশের প্রখ্যাত নজরুল গবেষক ও লেখক। তিনি প্রগতিশীল, অসাম্প্রদায়িক ও মানবিক চেতনার একজন অসাধারণ ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত ছিলেন। ভাষা আন্দোলন ও একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধসহ দেশের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছিলেন তিনি।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান মরহুমের রূহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার পরিবারের শোক-সন্তপ্ত সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

বিশিষ্ট নজরুল গবেষক অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রথম নজরুল অধ্যাপক এবং নজরুল গবেষণা কেন্দ্রের প্রথম পরিচালক। ৮৭ বছর বয়সী এই লেখক ভাষা আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছিলেন। সেই সময়ের দুর্লভ কিছু আলোকচিত্রও তুলেছিলেন তিনি। বাঙালির মুক্তি সংগ্রামের এই প্রত্যক্ষ সাক্ষী সেসব ইতিহাস গ্রন্থিত করেছেন তার লেখায়। শহীদ বুদ্ধিজীবীদের নিয়ে প্রথম গ্রন্থ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষের ইতিহাসের প্রথম গ্রন্থসহ প্রায় ৩০টি বই লেখা ও সম্পাদনা করেন তিনি।

অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম একুশে পদক, স্বাধীনতা পুরস্কার ও বাংলা একাডেমি পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন। এছাড়া এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে ঘোষিত প্রথম আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদকেও ভূষিত হয়েছিলেন তিনি।

রফিকুল ইসলাম একসময় বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ছিলেন। ২০১৮ সালে সরকার তাকে জাতীয় অধ্যাপক ঘোষণা করেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত