ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ৬ মিনিট আগে

ঢাবির লেডিস ওয়াশরুমে ছাত্রলীগ নেতার ‘মাতলামি’, ছাত্রী হেনস্তার অভিযোগ

  ঢাবি প্রতিনিধি

প্রকাশ : ১৮ আগস্ট ২০২২, ১৯:৩৫

ঢাবির লেডিস ওয়াশরুমে ছাত্রলীগ নেতার ‘মাতলামি’, ছাত্রী হেনস্তার অভিযোগ
অভিযুক্ত তানজিন আল আলামিন
ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েদের ওয়াশরুমে মাতাল অবস্থায় প্রবেশ করে ছাত্রী হেনস্তার অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের এক নেতার বিরুদ্ধে।

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) ছাত্রী ওয়াশরুমে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানান ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী।

অভিযুক্ত তানজিন আল আলামিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী এবং ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সংস্কৃতি বিষয়ক উপ-সম্পাদক। পাশাপাশি তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবৃত্তি সংসদের সভাপতি হিসেবেও কর্তব্যরত আছেন।

অন্যদিকে ভুক্তোভোগী ছাত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ সেশনের একজন শিক্ষার্থী। ঘটনার বিষয়ে ভুক্তোভোগী আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ ওঠার পর থেকে ওই ছাত্রীকে নানাভাবে ব্ল্যাকমেইলিং করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। তবে ঘটনার বর্ণনা অস্বীকার করে বিষয়টিকে ভুল বোঝাবুঝি বলে দাবি করছেন অভিযুক্ত তানজিন।

অভিযোগপত্র মতে, রাত সাড়ে ৮টার দিকে টিএসসিতে নারীদের জন্য নির্ধারিত ওয়াশরুম ব্যবহারকালীন তানজিন আল আলামিন মদ্যপ অবস্থায় ওয়াশরুমে প্রবেশ করেন। তখন তিনি একটি টয়লেটের দরজা খোলা রেখে অর্ধনগ্ন হয়ে মূত্রত্যাগ করতে থাকেন। ওই সময় তিনি ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর দিকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি প্রদর্শন করেন। এরপর ভীত ও উদ্বিগ্ন হয়ে বন্ধুদের সাথে নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে যান ভুক্তভোগী। এ সময় ভুল স্বীকার না করে অভিযুক্ত তানজিম তাচ্ছিল্যের সুরে এলোমেলো কথা বলতে থাকেন এবং তার সাথে থাকা আরও কয়েকজনসহ ভুক্তভোগীকে ‘দেখে নেয়ার’ হুমকি দিয়ে যান।

অভিযোগপত্রে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সিসিটিভি ফুটেজ তদারকির মাধ্যমে দোষী ব্যক্তি ও তার সহযোগীদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানান ভুক্তভোগী।

নিজের নিরাপত্তার কথা উল্লেখ করে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভুক্তভোগী বলেন, ‘আমি আমার সাথে ঘটা এ ঘটনার বিচার চাই। আমি এখনো মানসিক ট্রমার মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। আজকে আমাদের ছুটির দিন হওয়ায় আমি মেইলের মাধ্যমে অভিযোগপত্র সাবমিট করেছি। আগামীকাল আমি সরাসরি লিখিত অভিযোগ দেবো। অভিযুক্ত এখনো আমাকে বিভিন্নভাবে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করছে।’

ঘটনার বিষয়ে অভিযুক্ত তানজিন বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘আমি ভুল করে ঢুকে পড়েছিলাম। পরে বুঝতে পেরে বেরিয়ে যাই। এরপর আমি তাদেরকে অনেকবার সরি বলি। তারপরও তারা আমাকে নানাভাবে জেরা করে।’

মদ্যপ ছিলেন কি না জানতে চাওয়া হলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করেন এবং বলেন, ‘পুরো বিষয়টিই একটি ভুল বোঝাবুঝি। আমি বার বার তাদের বলেছি। তারা আমার বিষয়ে মিথ্যা অভিযোগ তুলছে।’

অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. মাহবুবুর রহমান লিটু বলেন, ‘আজ ছুটির দিন হওয়ায় তাকে (ভুক্তভোগী) ইমেইলে অভিযোগপত্র দিতে বলেছি। তিনি অভিযোগপত্র পাঠিয়েছেন। খোলার দিন দুপুর ১২টার মধ্যে হার্ডকপি জমা দিতে বলেছি। তারপর বিষয়টি আমরা দেখবো এবং সেই ‌অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবো।’

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত