ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:০৯

প্রিন্ট

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় স্বেচ্ছাসেবকের ভূমিকায় ছাত্রলীগ

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় স্বেচ্ছাসেবকের ভূমিকায় ছাত্রলীগ
রাবি প্রতিনিধি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ভর্তিচ্ছু ও অভিভাবকদের সহযোগিতায় নানামুখী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

সোমবার সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর নেতৃত্বে ভর্তিচ্ছু ও তাদের অভিভাবকদের হাতে হাতে কলম ও সুপেয় পানি বিতরণ করাসহ স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে ক্যাম্পাসে বেশ তৎপরতা লক্ষ্য করা দেখা গেছে। তাছাড়া দিনব্যাপী এ কর্মসূচিতে হেল্প ডেস্ক স্থাপন করে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সহযোগিতা করেন তারা। ছাত্রলীগের এমন কর্মকাণ্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন অভিভাবক ও ভর্তিচ্ছুরা।

ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্ত্বরে অস্থায়ী হেল্পডেস্ক বসিয়ে সেখান থেকে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। পানির বোতল ও কলম হাতে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন পয়েন্টে পয়েন্ট গিয়ে ভর্তিচ্ছুদের মাঝে তা বিতরণ করছেন তারা। তাদের আচরণ ও সহযোগিতায় মুগ্ধ হয়েছেন অভিভাবকরা।

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে মেয়েকে ভর্তি পরীক্ষা দিতে নিয়ে আসা রত্না বেগম বলেন, ‘দ্বিতীয় শিফটে আমার মেয়ের পরীক্ষা ছিল। আমরা একাডেমিক ভবনের সামনে বসেছিলাম। হঠাৎ কয়েকজন ছেলে আমাদেরকে পানি ও কলম দেয়। পরে জানলাম তারা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। তারা খুব ভালো কাজ করছে। আমার বিষয়টি ভালো লেগেছে।’

সিরাজুল ইসলাম নামে আরেক অভিভাবক বলেন, ‘আবরার হত্যাকাণ্ডসহ কয়েকটি নেতিবাচক কাজে দেশজুড়ে ছাত্রলীগের যে ইমেজ সংকট, সেখানে রাবি ছাত্রলীগের এ ধরনের কার্যক্রম প্রশংসার দাবি রাখে। যেখানে আমরা বসেছিলাম, সেখানে সবাই বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা করেছে। আমার কাছেও বিষয়টি ভালো মনে হয়েছে। ছাত্রলীগের কাছ থেকে এ ধরনের কার্যক্রম-ই আমরা আশা করি।’

ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, যেসকল ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থী পরীক্ষার আগের দিন ক্যাম্পাসে এসেছেন তাদের জন্য ক্যাম্পাসে হলে আবাসন ব্যবস্থা করার পাশাপাশি হলে অবস্থানকারী ভর্তি পরীক্ষার্থীদের সার্বিক সহযোগিতায় প্রতিটি হলে ছাত্রলীগের স্বেচ্ছাসেবক টিম কাজ করছে।

ভর্তি পরীক্ষার দিন ক্যাম্পাসের তিনটা গেইট এবং ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে ভর্তি পরীক্ষাদের যে কোনো দিক নির্দেশনা প্রদানের জন্য হেল্প-ডেস্ক আছে। এছাড়া ছাত্রলীগের স্বেচ্ছাসেবক টিম ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সুপেয় পানির ব্যবস্থা, কলম বিতরণসহ ভাম্যমান মেডিকেল টিম সার্বিক সহযোগিতা করে যাচ্ছে।

রাবি ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ভাই-বোনদের সার্বিক সহযোগিতায় আমরা সবসময় সোচ্চার। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের মতিহারের সবুজ চত্ত্বরে উষ্ণ অভিনন্দন। তাদের সাহায্য সহযোগিতায় আমাদের নেতা কর্মীরা দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ছাত্রলীগ ছাত্রদের অধিকার ও তাদের সেবায় কাজ করে। ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার্থীদের সার্বিক সহায়তায় আমরা বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করি। তাছাড়া রাতে ভর্তিচ্ছুদের থাকার ব্যবস্থা এবং হলে মোমবাতি ও মশার কয়েল বিতরণ করেছি। আজ সারাদিন আমাদের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন পয়েন্টে ভর্তিচ্ছু ও তাদের অভিভাবকদের সুপেয় খাবার পানি এবং কলম বিতরণ করেছি।

প্রসঙ্গত, এ বছর তিনটি ইউনিটে আসন প্রতি ১৬ জন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী প্রতিযোগিতা করছে। তিনটি ইউনিটে ৪ হাজার ৭১৩টি আসনের বিপরীতে ৭৮ হাজার ৯০টি আবেদন জমা পড়েছে। এ, বি, ও সি এই তিনটি ইউনিটে এমসিকিউ ও লিখিত (এসএকিউ) উভয় পদ্ধতিতে দেড় ঘণ্টায় একশ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত