ঢাকা, সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮ আপডেট : ২ মিনিট আগে

প্রকাশ : ২১ জুন ২০২১, ১৫:৪৭

প্রিন্ট

আবাসন-পরিবহন ফি প্রত্যাহারসহ ৫ দফা দাবি ছাত্রলীগের

আবাসন-পরিবহন ফি প্রত্যাহারসহ ৫ দফা দাবি ছাত্রলীগের
ছবি- প্রতিনিধি

ঢাবি প্রতিনিধি

মহামারীর কারণে হল-ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের আবাসন ও পরিবহন ফি প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা ছাত্রলীগ। সেইসঙ্গে সকল শিক্ষার্থীকে দ্রুত ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়ে আসা, মাদকমুক্ত ক্যাম্পাসের প্রশাসনিক নিশ্চয়তা, আবাসন সঙ্কট নিরসনে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়নের রোডম্যাপ প্রণয়ন, মেডিকেল সেন্টার আধুনিকায়ন ও কোভিড-১৯ চিকিৎসার সুব্যাবস্থার দাবি জানিয়েছে ছাত্র সংগঠনটি।

সোমবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এক ছাত্র সমাবেশ থেকে এসব দাবি জানায় ঢাবি শাখা ছাত্রলীগ।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সঞ্চালন করেন সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন।

সমাবেশে সনজিত চন্দ্র দাস বলেন, করোনার কারণে দীর্ঘসময় পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা নানা মানসিক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে এবং অনেক শিক্ষার্থী আত্মহত্যাও করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বলতে চাই, আপনারা অতিদ্রুত শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিনেশনের আওতায় এনে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম চালু করে শিক্ষার্থীদের এই ক্ষতি থেকে রক্ষা করুন। আবাসিক-অনাবাসিক সকল শিক্ষার্থীকে ভ্যাক্সিনেশনের আওতায় এনে হলে উঠানোর ব্যবস্থা করুন।

‘বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স উন্নত করে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সহ সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিমার আওতায় আনতে হবে।’

সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বলবো, সরকারের যে নৈতিক অঙ্গিকার (দারিদ্র্য বিমোচন), সেই নৈতিক অঙ্গিকারের প্রতি সমর্থন রেখে আবাসিক ফি সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাহার করে নেবেন, যাতে করে কৃষক-শ্রমিক পরিবারের সন্তানেরা স্বাভাবিকভাবে তাদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারে।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা পরিবহন সুবিধা গ্রহণ না করলেও তাদের এক হাজার ৮০ টাকা করে পরিবহন ফি দিতে হচ্ছে। আমরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ধিক্কার জানিয়ে বলছি, আপনারা অভিভাবকসুলভ আচরণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন। আমাদের আহ্বান থাকবে, আপনারা পরিবহন ফি নেয়া বন্ধ করবেন। যদি তা প্রত্যাহার না করেন, আমরা মনে করবো বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নৈতিকতা ভুল পথে চলে গেছে।

সাদ্দাম আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী সকল শিক্ষার্থীকে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় নিয়ে টিকা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে প্রশাসনের সমন্বয়হীনতার কারণে মেডিকেল কলেজ, ডেন্টাল কলেজের শিক্ষার্থীরা টিকার আওতায় আসলেও আমরা এখনো আসিনি। অনতিবিলম্বে সকল প্রশাসনিক শৈথিল্য বাতিল করে, প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে সকল শিক্ষার্থীকে টিকার আওতায় নিয়ে আসার ব্যবস্থা করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাধ্যমে আমরা যে মাস্টারপ্ল্যান পেয়েছি, তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে আঠারো হাজার শিক্ষার্থীর আবাসনের সুযোগ রয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত