ঢাকা, শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৯ কার্তিক ১৪২৭ আপডেট : ৯ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৫৪

প্রিন্ট

কম্বোডিয়ায় প্রবাসীর মৃত্যু, লাশ আসছে কাল

কম্বোডিয়ায় প্রবাসীর মৃত্যু, লাশ আসছে কাল
আবু দারদা যোবায়ের

কম্বোডিয়ার রাজধানী নমপেন থেকে আগামীকাল ৩০ সেপ্টেম্বর বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইনসের ফ্লাইট বিজি ৪০৬২ যোগে ঢাকা আসছে ফেনী জেলার সদর থানার ছনুয়া গ্রামের বাসিন্দা মো:জহিরুল হক জাফরের (৫০) লাশ।

তিনি গত ২১ সেপ্টেম্বর রাতে নমপেনের খামাই সোভিয়েত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এর আগে ১৮ সেপ্টেম্বর অসুস্থ বোধ করলে জাফর প্রথমে স্থানীয় কালমেট হাসপাতালে যান। পরে ঐ হাসপাতাল থেকে খামাই সোভিয়েত হাসপাতালে গিয়ে ভর্তি হন। সেখান পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ২১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ছয়টায় মারা যান তিনি।

নমপেনে বাংলাদেশী গার্মেন্টস ব্যবসায়ী ফরিদপুর জেলার অধিবাসী আবুল খায়ের মিয়া, এমএইচ কবির, ইমাম হোসেন, জেএইচ রফিক অসুস্থ হবার পর থেকে জাফরের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করেন।

তিনি এ প্রতিবেদককে জানান, মরহুম জহিরুল হক জাফর ডায়বেটিকের রোগী ছিলেন। হাসপাতালে ভর্তির পর তার ফুসফুসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। চিকিৎকরা জানিয়েছেন , ফুসফুসের জটিলতার কারণে তিনি মারা গেছেন । রাতেই হাসপাতালে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।জানাজায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা ছাড়াও সেদেশের মুসলিম সমপ্রদায়ের মানুষ শরীক হন। তার লাশ এখন হাসপাতালের হিম ঘরে রাখা আছে। নমপেনে বাংলাদেশ দূতাবাস না থাকায় সেখানে বসবাসকারি বাংলাদেশিদের উদ্যোগে ব্যাংককে বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় এই প্রথম কোন বাংলাদেশীর লাশ দেশে আসছে।

মরহুম জহিরুল হক জাফর প্রায় একুশ বছর ধরে কম্বোডিয়ার নমপেন শহরে বিভিন্ন গার্মেন্টস এ চাকুরি করেছেন। মৃত্যুর আগপর্যন্ত তিনি কোরিয়ান গার্মেন্টস কোম্পানি ইন কং এ প্রোডাকশন ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন । মৃত কালে তিনি মা, চার ভাই, এক বোন, স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেনে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত