ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮ আপডেট : ২৩ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০২১, ১৬:৩১

প্রিন্ট

পুলিশের ডাকে ডিবি কার্যালয়ে পরীমনি

পুলিশের ডাকে ডিবি কার্যালয়ে পরীমনি
ঢাকাই চলচ্চিত্রের নায়িকা পরীমনি।

বিনোদন ডেস্ক

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে দেশজুড়ে আলোচনায় থাকা বর্তমান সময়ের লাস্যময়ী অভিনেত্রী পরীমনি রাজধানীর মিন্টো রোডের গোয়েন্দা (ডিবি) কার্যালয়ে গেছেন। মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে ডিবি কার্যালয়ে প্রবেশ করেন নায়িকা।

গণমাধ্যমকে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ডিবির গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান। তিনি বলেন, ‘পরীমনিকে ডাকা হয়েছে মামলার বাদী হিসেবে। তার বক্তব্য শুনবেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। এছাড়াও মামলার আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করে যে তথ্য পাওয়া গেছে সে বিষয় নিয়েও পরীমনির সঙ্গে কথা বলা হবে।

গত রোববার রাতে পরীমনি তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ‘ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার’ অভিযোগ তুললে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় উঠে। এর প্রতিকার চেয়ে বনানী থানায় গিয়ে কোনো সাড়া পাননি বলে অভিযোগ করেন নায়িকা।

এরপর নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পোস্টে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মা ডেকে নির্যাতনের বিচার চান অভিনেত্রী। পরে রাতে বনানীর বাসায় এক সংবাদ সম্মেলন করে ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরেন পরীমনি।

তার অভিযোগ, গত বুধবার রাতে ডিজাইনার জিমি ও জিমির বন্ধু অমিসহ তারা আশুলিয়ার বোট ক্লাবে গিয়েছিলেন। ক্লাবটা তখন বন্ধ হচ্ছিলো। দুজন বয়স্ক ব্যক্তি এসে তাদের মদপানের আমন্ত্রণ জানায়, যাদের একজন নাসির মাহমুদ বলে পরীমনির ভাষ্য। তবে শরীর খারাপ বলে তা প্রত্যাখ্যান করেছিলেন পরীমনি।

তিনি বলেন, জোরাজুরির এক পর্যায়ে কিছু লোত তাকে মারধর করে। নাসির উদ্দিন তার মুখে মদের বোতল ঠেসে ধরে গিলতে বাধ্য করেন। তখন তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। বিষয়টি চেপে যাওয়ার জন্য ওই ব্যবসায়ী তাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেছেন বলে অভিযোগ করেন পরীমনি।

পরদিন সোমবার সাভার মডেল থানায় একটি মামলা করেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের এই অভিনেত্রী। এতে নাসির উদ্দিন ও তার বন্ধু অমির নাম উল্লেখ করে আরো চারজনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। পরীমনির করা মামলার পর ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ইতিমধ্যে মামলাটি তদন্ত করে আগামী ৮ জুলাই প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত