ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮ আপডেট : ২০ মিনিট আগে

নায়ক যখন নায়ক-নায়িকা’র বাবা

  বিনোদন প্রতিবেদক

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০২১, ১৪:৫৯

নায়ক যখন নায়ক-নায়িকা’র বাবা
ছবি: গোলাম সাব্বির

বিনোদন প্রতিবেদক

একজন নায়ক হিসেবেই চলচ্চিত্রে সুব্রত’র যাত্রা শুরু হয়েছিলো ১৯৮৫ সালের ১১ জানুয়ারি মহম্মদ হান্নানের প্রথম সিনেমা ‘রাই বিনোদিনী’র মধ্য দিয়ে। এই সিনেমায় তার নায়িকা ছিলো অঞ্জু ঘোষ। তবে সুব্রত জানান, তার প্রথম অভিনীত সিনেমা ইবনে মিজানের ‘পাতাল বিজয়’। এই সিনেমাতেও তার বিপরীতে ছিলেন অঞ্জু ঘোষ। পাতাল বিজয়’ ৮৫ সালের শেষপ্রান্তে মুক্তি পায়। পরবর্তীতে সুব্রত ‘মালা বদল’,‘ মাইয়ার নাম ময়না’,‘ সাগর কন্যা’,‘ পুষ্প মালা’,‘ হারানো সুর’, ‘সততা’,‘ তালা চাবি’,‘ পয়সা’, ‘হুমকি’,‘ নাগ জ্যোতি’, ‘চণ্ডিদাস রজকিনী’সহ আরো বেশ কিছু সিনেমায় নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেন।

চিত্রনায়িকা দোয়েল ছিলো তার স্ত্রী। গাজী মতিউর রহমান পরিচালিত ‘ঘোমটা’ সিনেমাতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে সুব্রত ও দোয়েলের প্রেমের সূত্রপাত। পরবর্তীতে বিয়ে করেন তারা। তাদের ঘরেরই মেয়ে এই সময়ের আলোচিত নায়িকা দীঘি। দোয়েল ২০১১ সালে মারা যান। সুব্রত, তার স্ত্রী দোয়েল ও তাদের একমাত্র কন্যা দীঘি’র একসঙ্গে একমাত্র সিনেমা হচ্ছে কাজী হায়াৎ’র ‘কাবুলিওয়ালা’।

২০০৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত প্রয়াত পরিচালক এমবি মানিক পরিচালিত ‘দুর্ধর্ষ’ সিনেমায় তিনি প্রথম নায়কের বাবা’র চরিত্রে অভিনয় করেন। পরবর্তীতে আরো অনেক নায়ক নায়িকা’র বাবার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন তিনি। বর্তমানে সুব্রত তপু খানের প্রথম সিনেমা ‘লিডার আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমায় বুবলীর বাবার চরিত্রে অভিনয় করছেন। এরইমধ্যে সুব্রত শেষ করেছেন মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘যাও পাখি বল তারে’ ও মেহেদী হাসানের ‘নদীর জলে শাপলা’ ভাসে সিনেমার কাজ।

সুব্রত অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা হচ্ছে ‘টুঙ্গি পাড়ার মিয়া ভাই’। এতে তিনি হামিদ মাস্টারের ভূমিকায় অভিনয় করেন। নাটকেও তিনি বাবার ভূমিকায় অভিনয় করছেন নিয়মিত। টিভিতে তার অভিনীত প্রথম নাটক ছিলো দীলিপ রায়ের পরিচালনায় ‘মক্কেল মঞ্জিল’। চার পর্বের এই ধারাবাহিকটি ২০০১ সালে একুশে টিভি’র প্রথম ধারাবাহিক। বর্তমানে সুব্রত লাজুকের নির্দেশনায় ‘পরিবার’র ও দোদুলে নির্দেশনায় ‘জমিদার বাড়ি’ ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন।

চলচ্চিত্র জীবন এবং ব্যক্তিগত জীবন প্রসঙ্গে সুব্রত বলেন, অভিনয় জীবনের শুরু থেকেই দর্শকের ভালোবাসা পেয়ে আসছি। এটাই অনেক বড় প্রাপ্তি। ঘোমটা সিনেমায় অভিনয়ের মধ্যদিয়ে প্রথম দোয়েল’র প্রেমে পড়ি। তার চোখ দেখে প্রথম প্রেমে পড়ি। তার আন্তরিকতা, সরলতা আমাকে মুগ্ধ করতো। চলার পথে প্রতিটি মুহূর্তে তাকে খুব মিস করি। সিনেমাতে এবং নাটকে বাবার চরিত্রেই কাজ করার বেশি প্রস্তাব পাই। অন্যান্য চরিত্রেও কাজ করা হয়ে থাকে। আমি সব সময়ই আমার চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলার ক্ষেত্রে এখনো সেই প্রথম দিনের মতোই সিরিয়াস থাকি। সিনেমাতে সুব্রত’র প্রথম বাবা হয়েছিলেন শওকত আকবর এবং মা হয়েছিলেন শর্মিলী আহমেদ।

আইএন/কেআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত