ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯ আপডেট : ১৪ মিনিট আগে

শিহাব শাহীনের ‘মিম্মি’, ইয়াশের মায়ের চরিত্রে মেহজাবীন

  বিনোদন প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২০ এপ্রিল ২০২২, ১৬:২৫  
আপডেট :
 ২০ এপ্রিল ২০২২, ১৬:৩৫

শিহাব শাহীনের ‘মিম্মি’, ইয়াশের মায়ের চরিত্রে মেহজাবীন
বিনোদন প্রতিবেদক

টেলিভিশন হোক কিংবা সিনেমা; প্রধান চরিত্রে অভিনয় করা শিল্পীদের কাউকেই সচরাচর নায়ক-নায়িকার বাইরে কেন্দ্রীয় চরিত্রটির বাবা কিংবা মা হয়ে উঠতে দেখা যায় না, দেখা গেলেও সেটি হয়তো বয়স হয়ে যাবার পর। নায়ক-নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করা অবস্থাতে তো আরও না! এবার এমন অসাধ্যই সাধন করলেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী।

আসছে ঈদের জন্য একটি বিশেষ নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি, যেখানে তিনি অভিনয় করেছেন নায়কের মায়ের চরিত্রে। যেটা রীতিমত অবাক করার মতই ঘটনা! তিনি যে চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করেন, এটা আবারও প্রমাণ করলেন। ক্যারিয়ারের তুঙ্গে থাকা অবস্থাতেই এমন চরিত্রে অভিনয় করার সাহসিকতা সবার হয় না।

নাটকের নাম ‘মিম্মি’। ডা: জাহান সুলতানার রচনায় এটি পরিচালনা করেছেন জনপ্রিয় নির্মাতা শিহাব শাহীন। ফ্যামিলি ড্রামার গল্পে নির্মিত এ নাটকটিতে অভিনয় করেছেন ইয়াশ রোহান, তার বাবার চরিত্রে শাহেদ শরীফ খান এবং তার সৎ মায়ের চরিত্রে দেখা যাবে মেহজাবীন চৌধুরীকে।

নির্মাতা শিহাব শাহীন বলেন, ‘মিম্মি’ হচ্ছে একটু ভিন্নধর্মী গল্প। একজন তরুণী সন্তান জন্ম না দিয়েও মা হয়ে ওঠার গল্প, বন্ধু হয়ে ওঠার গল্প। আরও সহজভাবে বললে, একজন সৎ মায়ের বন্ধু হয়ে ওঠার গল্প। এটা এ সমাজের, এই সময়েরই কথা বলবে। একজন বয়স্ক মানুষকে ভালোবেসে বিয়ে করা এবং সেখানে সৎ মা হয়ে আসা; এরপর সেই সংসারে নিজের সমবয়সী সন্তানের মা হওয়ার এক জার্নির গল্প। গল্পটা একটু ইন্টারেস্টিং, দর্শক অন্যরকম কিছুই দেখতে পাবে। ভালো লাগবে আশা করি।

তিনি আরও বলেন, আমি মেহজাবীনকে দুটি গল্প দিয়েছিলাম তার মধ্যে সে এই গল্পটা সিলেক্ট করেছে। যেখানে কিছুদিন আগেই ইয়াশের সঙ্গে জুটি বেঁধে কাপল হয়ে কাজ করেছে সেখানে এই সময়েই তার মায়ের চরিত্র করতে রাজি হয়েছে, এটা তার সাহসিকতার একটা অন্যতম পরিচয়। এটা তার জন্য অবশ্যই একটা চ্যালেঞ্জ। তার এই সাহসিকতাকে আমি সাধুবাদ জানাই।

এই বিষয়ে মেহজাবীন চৌধুরী বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, আমাকে শিহাব ভাইয়া দুটি গল্প দিয়েছিলেন তার মধ্যে এই গল্পটাই আমার কাছে বেশি ইন্টারেস্টিং লেগেছে এবং আমার জন্য চ্যালেঞ্জিং মনে হয়েছে। যার জন্য কাজটি করতে রাজি হয়েছি। খুবই সুন্দর একটি গল্প যেখানে দর্শকরা আমাকে এবার একটু অন্যরকমভাবে দেখতে পাবে।

কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করা কোন নায়িকারা সচরাচর মায়ের চরিত্রে অভিনয় করতে চান না, তাও আবার এমন সময়ে। যদি করেও থাকেন সেটা ক্যারিয়ারের শেষ দিকে গিয়ে। কিন্তু আপনি ক্যারিয়ারের মধ্যগগণে থেকে তাও আবার নায়কের মায়ের চরিত্রে অভিনয়ের সাহস দেখিয়েছেন, এই সিদ্ধান্তটা কেন? এমন প্রশ্নে সুপারস্টারের সহজাত উত্তর, এটা তো জাস্ট একটা চরিত্র! কে চান বা চান না, সেটা তো আমি জানিনা তবে আমি সবসময়ই চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করি, গল্পটি পড়ার পর আমার কাছে মনে হয়েছে এটা আমার জন্য নতুন এবং চ্যালেঞ্জিং তাই সম্মতি দিয়েছি। আমি সবসময় নতুন কিছু খুঁজি, যেসব চরিত্রে এখনও আমার কাজ করা হয়ে উঠেনি সেসব চরিত্রে নিজেকে এক্সপ্লোর করতে চাই। এটার ক্ষেত্রেও তাই। নতুন নতুন গল্প এবং চরিত্রে নিজেকে এক্সপ্লোর করে যেতে চাই।

একটা সময় আসবে, যখন হয়তো আমি কেন্দ্রীয় চরিত্র বা নায়িকা চরিত্রে কাজ করতে পারব না। অর্থাৎ আমাকে মানাবে না। তখন যেন আমি ‘চরিত্র’ হয়ে কাজ করতে পারি। চরিত্রই একটা সময় বাঁচিয়ে রাখবে আমাকে। বলা যায়, সেই প্রস্তুতি এখন থেকেই নিচ্ছি। কারণ, আমি তো অভিনয় ছাড়ব না। এই জায়গা আমাকে অনেক কিছুই দিয়েছে।

আসছে ঈদে ‘মিম্মি’ নাটকটি অবমুক্ত হবে সিএমভি'র ইউটিউব চ্যানেলে।

বাংলাদেশ জার্নাল/আইএন

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত