‘শুটিংয়ে হাসতে মানা ও ৭ দিন ফোন ব্যবহার নিষেধ ছিল’

প্রকাশ : ২২ জুন ২০২২, ১৪:০৯ | অনলাইন সংস্করণ

  বিনোদন ডেস্ক

আগামী ২৩ জুন ওটিটি প্লাটফর্ম চরকিতে মুক্তি পেতে যাচ্ছে অ্যান্থলজি সিনেমা ‘এই মুহূর্তে’, যার একটি পর্বের নাম ‘কোথায় পালাবে বলো রূপবান’। এটি পরিচালনা করেছেন মেজবাউর রহমান সুমন। এ সময়ের এক নারীর লড়াইকেই ‘রূপবান’ হিসেবে দেখিয়েছেন নির্মাতা। এখানে নাম ভূমিকায় অর্থাৎ কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রিয়ন্তী উর্বী। 

‘রূপবান’ দিয়েই ওটিটিতে অভিষেক হচ্ছে তার। প্রথম কাজেই মেজবাউর রহমান সুমনের সাথে কাজ করতে পেরে বেশ উচ্ছ্বসিত এই অভিনেত্রী। উর্বী বলেন, ‘সবকিছু মিলিয়ে এমন অদ্ভুত একটা অনুভূতি কাজ করছে যা ঠিক ভাষায় প্রকাশ করতে পারবো না। তবে এতটুকু বলতে পারি কাজটি নিয়ে আমি অনেক নার্ভাস। কারণ, ওটিটি প্রথম কাজ তার উপর আবার সুমন ভাইয়ের পরিচালনায় কাজ করেছি। খুব ভয়ে আছি দর্শকদের ভালো লাগবে কিনা!’

চরিত্রের জন্য নিজেকে কীভাবে তৈরি করেছেন জানতে চাইলে উর্বী বলেন, ‘প্রায় ৩ মাস ধরে আমার গ্রুমিং চলেছে। হাসতে মানা ছিল; কারণ বাস্তবে আমি কারণে অকারণে খুব হাসি। শুটিংয়ের ৭দিন আমার ফোন ব্যবহার করা নিষেধ ছিল। তারপর সারাদিন আমার কোলে একটা নবজাতক ছিল। সব মিলিয়ে দারুণ এক অভিজ্ঞতা হয়েছে কাজট করে। এখন দর্শকদের কেমন লাগবে সেই অপেক্ষায় আছি।’

প্রায় ১০-১২ বছর পর ফিকশন বানালেন মেজবাউর রহমান সুমন। তাই ‘এই মুহূর্তে’ অ্যান্থলজি সিনেমাটি নিয়ে তিনিও বেশ আনন্দিত। তিনি বলেন, ‘দীর্ঘ প্রায় ১২ বছর পর আমার আবার ফিকশনে ফেরা। আর সেটা একটা অ্যান্থলজি প্রজেক্টের মধ্য দিয়ে। সামনে আমার আরেকটা সিনেমা মুক্তি পাবে। সব মিলিয়ে আমার জন্য সময়টা খুব আনন্দের।

‘এই প্রজেক্টে সব থেকে ভালো লাগার বিষয় হলো আমদের এক সাথে কাজ করা। এই কাজের মধ্য দিয়ে আমাদের তিন পরিচালকের চিন্তার জায়গাগুলো একে অপরের মধ্যে অনেক আদান প্রদান হয়েছে। সেটা হয়তো আড্ডার ছলেও হয় কিন্তু এবার সেটা কাজের মাধ্যমে খুব বেগবান হয়েছে।’

‘কোথায় পালাবে বলো রূপবান’-এ উর্বীর সাথে আরও দেখা যাবে মোস্তাফিজুর নূর ইমরান,  রাশেদা রাখি, কামরুজ্জামান তাপু, দৃষ্টি প্রামাণিকসহ আরও অনেককে।

বাংলাদেশ জার্নাল/আইএন