ঢাকা, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬ অাপডেট : ৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৫:৫০

প্রিন্ট

বদলে গেলো এলআরবির নাম

বদলে গেলো এলআরবির নাম
বিনোদন প্রতিবেদক

বাংলা সঙ্গীত ভূবনের অন্যতম জনপ্রিয় ব্যান্ডদল এলআরবি। আর এই এলআরবি দলটি নিজ হাতে গড়ে তুলেছিলেন প্রয়াত জনপ্রিয় কিংবদন্তি গিটারিস্ট আইয়ুব বাচ্চু। আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর পর অনিশ্চয়তায় পড়ে ছিলো এলআরবি। কে ধরবে এলআরবির হাল?

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে কিছুদিন আগে এলআরবির সঙ্গে যুক্ত হন শিল্পী বালাম। বালামের যুক্ত হওয়া নিয়ে তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সমালোচনা হয়। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই ফের নতুন সমালোচনার শুরু। আর এ সমালোচনার হচ্ছে এলআরবির নাম বদলকে কেন্দ্র করে।

এলআরবি ব্যান্ডের নাম পরিবর্তন করে নতুন নাম দেওয়া হয়েছে বালাম অ্যান্ড লিগ্যাসি। সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দলটির ম্যানেজার শামীম আহমেদ।

এ বিষয়ে দলটির ম্যানেজার শামীম আহমেদ বলেন, ‘আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার চাচ্ছে, আমরা এলআরবি নাম দিয়ে দলটি আর যাতে এগিয়ে নিয়ে না যায়। আমরা তার পরিবারের প্রতি সম্মান রেখেই এলআরবি রাখছি না। আমরা যেহেতু উনাকে হৃদয় থেকে মুছতে পারবো না। তাই উনার সম্মান রাখতে যা যা করার সবই করবো। উনার পরিবার বাধা না দিলে উনার গানগুলো করবো।’

এখন থেকে এলআরবি ব্যান্ডের জায়গায় বালাম অ্যান্ড লিগেছি ব্যান্ড হয়ে মঞ্চ মাতাতে দেখা যাবে দলটিকে। তবে নাম পরিবর্তনের বিষয়ে পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত পরিবার থেকে নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের সদস্যরা এলআরবি নামটি ব্যবহার না করার জন্য বিশেষ অনুরোধ জানান।

এদিকে আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর পর কেউ তার পরিবারের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করেনি। কোনো খোঁজখবর নেয়নি। আইয়ুব বাচ্চুর স্মৃতি আর তার ব্যান্ডকে ধ্বংস করার জন্য একটি মহল চেষ্টা করছে।

উল্লেখ্য, ১৯৯০ সালে আইয়ুব বাচ্চুর নিজ হাতে গড়ে তোলেন এলআরবি ব্যান্ড দল। শুরুতে ব্যান্ড দলটির নাম ছিলো ‘লিটল লিভার ব্যান্ড’ (এলআরবি)। এরপর ১৯৯৭ সালে নামের পরিবর্তন আসে। পরিবর্তন এসে নাম হয় ‘লাভ রানস ব্যান্ড’ (এলআরবি)। পরবর্তী সময়ে আরও সমৃদ্ধ করেন দলটি। উপহার দিয়েছেন দর্শকদের অসংখ্যা জনপ্রিয় ও নিরীক্ষামূলক গান। যা বাংলা ব্যান্ড সংগীতকে নিয়ে যায় অনন্য এক উচ্চতায়।

বাংলাদেশ জার্নাল / এএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close