ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯ আপডেট : ২৫ মিনিট আগে

ভিসতায় যোগ দিলেন চিত্র নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন

  জার্নাল ডেস্ক

প্রকাশ : ১৮ মে ২০২২, ০১:২৩  
আপডেট :
 ১৮ মে ২০২২, ০২:০৪

ভিসতায় যোগ দিলেন চিত্র নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন
জার্নাল ডেস্ক

জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত জনপ্রিয় চিত্রনায়ক, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের চেয়ারম্যান, ওয়ালটনের সাবেক নির্বাহী পরিচালক ইলিয়াস কাঞ্চন এবার যোগ দিলেন ভিসতা ইলেকট্রনিক্সে। তিনি উদ্যোক্তা পরিচালক হিসেবে ভিসতায় যোগ দেন।

চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের অভিষেকের দিনেই গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য নিজেদের উৎপাদিত ইলেকট্রনিক্স পণ্যে ২০% ছাড়ের দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে ভিসতা ইলেকট্রনিক্স।

চলচ্চিত্রের পাশাপাশি ইলেকট্রনিক শিল্পেও ইলিয়াস কাঞ্চনের পথচলা নতুন নয়। এর আগেও তিনি ছিলেন ওয়ালটনের সাবেক ব্র্যান্ড এম্বাসেডর ও নির্বাহী পরিচালক।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার বিকেলে গুলশানে ঢাকা ওয়েস্টিন হোটেলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ‘গ্র্যান্ড রিসিপশন টু ইলিয়াস কাঞ্চন' শীর্ষক অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভিসতা ইলেকট্রনিক্স এর চেয়ারম্যান সামছুল আলম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক লোকমান হোসেন আকাশ, পরিচালক প্রকৌশলী মো. মইনুল হক, উদয় হাকিম, এইচভ্যাক এর পরিচালক প্রকৌশলী মো. শহীদ উল্লাহ, ভিসতার হেড অব মার্কেটিং তানভীর জিহাদ প্রমুখ।

ভিসতায় যোগ দেয়ার মাধ্যমে উদ্যোক্তা হিসেবে নিজের নাম লেখানো ইলিয়াস কাঞ্চনের এদিনের অনুভূতিও ছিল অন্যরকম।

অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে বললেন, ২০০৫ সালে যোগ দিয়েছিলাম। সারা দেশের মানুষ তখন জানতো ওয়ালটনের একজন মালিক হিসেবে। সেটা আর সেভাবে তেমন কিছু হয়নি। এখন দেখছি আর অনেকেই ওয়ালটন ছেড়ে চলে এসেছেন। তাদের সাথে আমার কাজ করার বিষয় প্রাধান্য ছিল নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের বিষয়টি। সে সময় তারা নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের বিষয়ে বেশ পৃষ্ঠপোষকতাও দিয়েছিল।

আপনারা জানেন, ওয়ালটনের প্রতিটি শোরুম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমি উপস্থিত হতাম এবং প্রথমে গিয়ে বলতাম নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের কথা। কিন্তু ওয়ালটন নিরাপত্তা আন্দোলনের বিষয় থেকে সরে আসলো এবং আমিও সরে দাঁড়ালাম।

অনুষ্ঠানে বলা হয়, নিরাপদ সড়ক চাই নামে একটি সামাজিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে দেশ বিদেশে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। চলচ্চিত্র, মানুষের জন্য সামাজিক আন্দোলন, পণ্যের প্রচার-প্রসার সব ক্ষেত্রেই তিনি সফলতার স্বাক্ষর রেখেছেন। উদ্যোক্তা হিসেবেও তিনি সফল হবেন বলে ভিসতা পরিবারের প্রত্যাশা।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের জানুয়ারিতে ভিসতার যাত্রা শুরু। ভিসতা শব্দের অর্থ দূরদর্শী। এর ভাবার্থ সাফল্যের সিঁড়ি।

গাজীপুরে বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্কে ভিসতা ইলেকট্রনিক্স পণ্যের কারখানা স্থাপন করেছে। সেখানে অ্যান্ড্রয়েড এবং বিভিন্ন ধরনের টিভি উৎপাদন চলছে। চলতি বছরের মধ্যেই হোম অ্যাপ্লায়েন্স এবং এসি উৎপাদন কারখানা তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে। এরপর স্মার্ট রেফ্রিজারেটর উৎপাদনে যাবে ভিসতা। এছাড়া মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর, বিভিন্ন ধরনের মনিটর, ভিডিও ওয়াল, ডিজিটাল সাইনেজ, ডিজিটাল হোয়াইট বোর্ড, রাউটার, ল্যাপটপ, স্মার্ট মিরর, মেডিকেল ডিসপ্লে, ভিজারএফ এসি, এসেক্সরিজসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স পণ্য বাজারজাত করতে যাচ্ছে ভিসতা।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত