ঢাকা, শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ৪ মিনিট আগে

প্রকাশ : ০৮ মার্চ ২০২১, ১২:০১

প্রিন্ট

এক বছরের মাথায় দেশে আবারো বাড়ছে করোনা

এক বছরের মাথায় দেশে আবারো বাড়ছে করোনা

জার্নাল ডেস্ক

দেশে ২০২০ সালের ৮ মার্চ প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তের তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। আর এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। এরপর থেকে শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা উঠা নামা করলেও প্রতিনিয়তই সংখ্যা বেড়েছে। তবে সুস্থতার সংখ্যা আশা জাগিয়েছে।

এদিকে বিগত দিনগুলোর তুলনায় আবারো করোনা সংক্রমণ শনাক্তের হার বেড়েছে। রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনার সর্বশেষ পরিস্থিতি জানিয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো বিজ্ঞপ্তির তথ্য অনুযায়ী দেখা যায়, এক দিনে মারা গেছেন আরো ১১ জন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮ হাজার ৪৬২ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও ৬০৬ জনের শরীরে।

এক বছরে ৪১ লাখ ৪৬ হাজার ২০৫টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তাতে রোগী শনাক্ত হয়েছে ৫ লাখ ৫০ হাজার ৩৩০ জন। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন। ৫ লাখ ৩ হাজার ৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৪৬২ জনের। ৬ হাজার ৩৯৭ জনই পুরুষ এবং ২ হাজার ৬৫ জন নারী।

অধিদপ্তরের তথ্য বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, ৮ মার্চ প্রথম রোগী শনাক্তের পর এ সংখ্যা এক লাখের ঘরে পৌঁছায় ১৮ জুন। ২৬ অগাস্ট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ছাড়ায় ৩ লাখ। ২৬ অক্টোবর এ সংখ্যা ৪ লাখ ছাড়িয়ে যায়। আর শনাক্ত রোগী সংখ্যা পরবর্তী এক লাখ ছাড়িয়ে যায় ৫৫ দিন পর গত ২০ ডিসেম্বর। এর পর নানা কারণে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমতে থাকে। ৭৭ দিনে শনাক্ত রোগীর তালিকায় ৫০ হাজার জন। এর মধ্যে গত ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।

আর ১৮ মার্চ করোনা ভাইরাসে প্রথম মৃত্যু হবার তথ্য জানানোর এক মাস পর ২০ এপ্রিল শতকের ঘরে পৌঁছায় মৃতের সংখ্যা। এ সংখ্যা ৫’শ ছাড়ায় গত ২৫ মে। এরপর ১০ জুন মৃতের সংখ্যা হাজার ছাড়ায়। করোনা ভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর ৮৫ দিন পর ৫ জুলাই মৃতের সংখ্যা দুই হাজারের ঘর ছাড়িয়ে যায়। এরপর কম সময়ের ব্যবধানে বাড়তে থাকে মৃতের সংখ্যা। ২৮ জুলাই ৩ হাজার, ২৫ অগাস্ট ৪ হাজার, ২২ সেপ্টেম্বর ৫ হাজার, ২৬ নভেম্বর তা সাড়ে ছয় হাজার এবং ২৯ ডিসেম্বর তা সাড়ে সাত হাজারের ঘর ছাড়িয়ে যায়। আর মৃতের সংখ্যা ৮ হাজার ছাড়িয়ে যায় চলতি বছরের ২৩ জানুয়ারি। ২০২০ সালের ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যু হয়। যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

চলতি বছরের জানুয়ারির পর থেকে দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিন্মগামী ছিল। এ হার নেমে এসেছিলো ৩ শতাংশেরও কমে। তবে পরীক্ষার সংখ্যা বিবেচনায় গত কয়েক দিন ধরেই রোগী শনাক্তের হার বেড়েছে। রবিবার ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ছিলো ৪ দশমিক ৩০ শতাংশ। শনিবার এই হার ৪ দশমিক ১৩ শতাংশ এবং শুক্রবার নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ছিলো ৪ দশমিক ৬৩ শতাংশ। বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে অনেকটাই বিপরীতধর্মী আচরণ করছে করোনা ভাইরাস। শীত মৌসুমে বিভিন্ন দেশে করোনার সংক্রমণ বাড়লেও পুরো উল্টো চিত্র দেখা গেছে বাংলাদেশে। তবে গত কয়েক দিনে তাপমাত্রা বাড়ায় সংক্রমণ বাড়ছে। যা নতুন করে ভাবিয়ে তুলেছে সবাইকে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত