ঢাকা, রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

দুই ডোজ টিকার প্রতিরোধও ভাঙছে ডেল্টা

  জার্নাল ডেস্ক

প্রকাশ : ২৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৫৬  
আপডেট :
 ২৭ জুলাই ২০২১, ০০:৪৮

দুই ডোজ টিকার প্রতিরোধও ভাঙছে ডেল্টা
জার্নাল ডেস্ক

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের অতি সংক্রমণশীল ডেল্টা ভ্যারিয়ান্ট উদ্বেগ বাড়াচ্ছে। গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, দুই ডোজ করোনার টিকা নেওয়ার পরও অনেকেই ডেল্টায় আক্রান্ত হচ্ছেন। বিভিন্ন দেশের প্রকাশিত পরিসংখ্যানে দেখা যায়, টিকার ডোজ সম্পূর্ণ নেওয়ার পরও ডেল্টা ধরনে আক্রান্ত হওয়া এবং হাসপাতালে যাওয়া মানুষের সংখ্যা নেহাৎ কম নয়।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনের দুই ডোজ নেওয়ার পরও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। পরীক্ষায় ধরা পড়ে তার দেহে সংক্রমিত হয়েছে করোনার ধরণ ডেল্টা। যুক্তরাজ্যের পাবলিক হেলথ ডিপার্টমেন্ট গত শুক্রবার এক পরিসংখ্যান দিয়ে বলেছে, দেশটিতে ডেল্টা ধরনে আক্রান্ত মোট ৩ হাজার ৬৯২ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৫৮ দশমিক ৩ শতাংশ টিকা না নেওয়া মানুষ; আর ২২ দশমিক ৮ শতাংশ মানুষ দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন।

গত সপ্তাহে সুইডেনে পরিচালিত এক জরিপে দেখা যায়, দেশটিতে যারা ইতিমধ্যে ভ্যাকসিনের দু’টি ডোজই পেয়েছিলেন তাঁদের মধ্যে প্রায় ৩৫০০ জন পুনরায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, যা সুইডেনে পূর্ণডোজ গ্রহণকারীদের ০.১৫ শতাংশ। ভ্যাকসিনের পূর্ণডোজ নিয়েছেন এমন লোকদের মধ্যে সংক্রমণ বৃদ্ধির বিষয়টি সুইডেনসহ ইউরোপের অন্যান্য দেশের স্বাস্থ্য সংস্থাগুলোকে বিশেষভাবে চিন্তিত করে তুলেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে ভাইরাস সংক্রমিতদের ৮৩ শতাংশই ডেল্টা আক্রান্ত।ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যের হামবোল্ড কাউন্টিতে ডেল্টা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে এবং পুরোপুরি টিকা নেওয়াদের মধ্যেও তা ক্রমেই ছড়িয়ে পড়তে দেখা যাচ্ছে বলে দু’দিন আগেই সতর্কবার্তা দিয়েছেন সেখানকার এক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

সিঙ্গাপুরেও ছড়িয়েছে ডেল্টা ধরন। গত শুক্রবার সেখানকার সরকারি কর্মকর্তারা বলেছেন, সেখানে এই ভাইরাসে আক্রান্তদের তিন-চতুর্থাংশই টিকা নেওয়া মানুষ। যদিও তাদের কেউই গুরুতর অসুস্থ হননি।

এর আগে ইসরায়েলের এক গবেষণায় বলা হয়, ফাইজার-বায়োনটেকের মতো কার্যকর করোনা টিকার দুটি ডোজ পাওয়া সত্ত্বেও সে দেশে কিছু মানুষ ডেল্টায় আক্রান্ত হচ্ছেন ৷ গবেষণার ফল অনুযায়ী ডেল্টার মোকাবিলায় সেই টিকার কার্যকারিতা প্রায় ৬৪ শতাংশ।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনাভাইরাসের ডেল্টা ধরন দুই ডোজ টিকা নেওয়া মানুষদেরকেও কিছুক্ষেত্রে আক্রান্ত করতে সক্ষম। এর বেশ কিছু প্রমাণ মিলেছে। এ বিষয়ে যুক্তরাজ্যের করোনার জিনোম সিকোয়েন্স নিয়ে কাজ করা মাইক্রোবায়োলজিস্ট শ্যারন পিকক বলেন, এ মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ঝুঁকিটাই হচ্ছে ডেল্টা। করোনাভাইরাসের এই ধরনকে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ‘শক্তিশালী এবং অতিদ্রুত সংক্রামক’।

কোভিড বিশেষজ্ঞর বলছেন, মিউটেশনের মধ্য দিয়ে করোনাভাইরাস অনবরতই রূপ বদলায় এবং নতুন নতুন ধরনের উদ্ভব ঘটে। কখনও কখনও এই ধরনগুলো মূল ভাইরাসের চেয়েও বিপজ্জনক হয়ে দাঁড়ায়। অনেকক্ষেত্রে ডেল্টার মতো কিছু ভ্যারিয়েন্ট টিকার সুরক্ষা ভেদ করতে পারে। তবে করোনাভাইরাসের যে কোনও ধরনে গুরুতর অসুস্থতা এবং হাসপাতালে যাওয়া থেকে সুরক্ষার ক্ষেত্রে টিকা অনেকখানি কাজে দেয় এবং এখনও টিকা না নেওয়া মানুষেরা ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে আছেন।

এদিকে ডেল্টা ও ভবিষ্যতে অন্যান্য সম্ভাব্য আরও ছোঁয়াচে ও মারাত্মক সংস্করণের মোকাবিলা করতে তৃতীয় ডোজ প্রয়োগ করতে চাইছে ফাইজার কোম্পানি। আগামী মাসেই মার্কিন কর্তৃপক্ষের কাছে সেই লক্ষ্যে আবেদন জমা দেবার পরিকল্পনা রয়েছে৷ কোম্পানির প্রধান বিজ্ঞানী মিকায়েল ডলস্টেন এই খবর জানিয়েছেন। তার মতে, দ্বিতীয় ডোজ পাবার ছয় মাস পর প্রতিরোধ শক্তি কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়ার ঝুঁকির ভিত্তিতে তৃতীয় ‘বুস্টার' ডোজের প্রয়োজন হতে পারে৷ বিশেষ করে ডেল্টার মতো জোরালো ভেরিয়েন্টের মোকাবিলার জন্য এমন পদক্ষেপের প্রয়োজন রয়েছে৷ ইউরোপের কিছু দেশ ইতোমধ্যেই ফাইজার-বায়োনটেকের টিকার তৃতীয় ডোজের বিষয়ে আলোচনা শুরু করেছে। সম্ভবত ইউরোপে এই পদক্ষেপ দ্রুত অনুমোদন পেতে পারে বলে ডলস্টেন মনে করেন।

বাংলাদেশ জার্নাল- ওআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত