ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ০৭ জানুয়ারি ২০২০, ১৭:০১

প্রিন্ট

কার হাতে দিল্লি, জানা যাবে ১১ ফেব্রুয়ারি

কার হাতে দিল্লি?
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

দিল্লি বিধানসভার নির্বাচন হবে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি, ফলাফল তিনদিন পর ১১ তারিখ। তখনই বোঝা যাবে, কার কাছে থাকবে রাজধানীর শাসনভার, মোদী-শাহের বিজেপি না কি অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আপ-এর হাতে।

নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহের দিল্লি বিধানসভা দখলের সাধ এখনও অপূর্ণ। পাঁচ বছর আগে তাদের গোহারা হারিয়ে ক্ষমতায় এসেছিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল, ৭০ এর মধ্যে ৬৭ আসনে জিতে। এই অভূতপূর্ব জয়ের পর কেজরিওয়াল-ম্যাজিক আর অন্য কোনো রাজ্যে দেখা যায়নি। অন্য রাজ্যে বিজেপি বা কংগ্রেসের কাছে লড়াইয়ে হেরে গেলেও দিল্লির চৌহদ্দিতে কেজরিওয়াল এখনও বড় শক্তি। লোকসভায় সাতের মধ্যে সাতটি আসনে জিতেছিলেন মোদী-শাহ। বিধানসভার লড়াইটা অন্য। সেই ভোট হবে ৮ ফেব্রুয়ারি এবং লড়াইয়ের ফল জানা যাবে ১১ তারিখ।

ডয়চে ভেলের খবরে বলা হয়েছে গত পাঁচ বছরে মোদী-শাহের বিজেপি বনাম অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আপ এর লড়াই বারবার সামনে এসেছে। একসময় প্রায় প্রতিদিন নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানানোর পর অরবিন্দ কেজরিওয়াল গত দেড়-দু’বছর ধরে কৌশল বদলেছেন।

তিনি নিজের হাতে যে সীমীত ক্ষমতা আছে, তা কাজে লাগিয়ে দিল্লির সরকারি স্কুল, সরকারি হাসপাতালের হাল ফিরিয়েছেন, প্রতিটি এলাকায় মহল্লা ক্লিনিক খুলেছেন। তবে তার ভোটের মাস্টারস্ট্রোক হল, ২০০ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুতের বিল ফ্রি করে দেয়া। ফলে এই শীতের মরসুমে প্রচুর দিল্লিবাসীকে বিদ্যুতের জন্য কোনো পয়সা খরচ করতে হচ্ছে না। জলের মাসুলও কার্যত শূণ্য করে দিয়েছেন কেজরিওয়াল। তার জোরেই তিনি জিততে চান। উল্টোদিকে বিজেপি মোদীকে সামনে রেখে সিএএ ও এনআরসি নিয়ে প্রচার চালিয়ে দিল্লি দখল করতে চাইছে। তৃতীয় পক্ষ কংগ্রেস ময়দানে আছে ঠিকই, কিন্তু তাদের শক্তি ক্রমশ কমছে৷ তারা গতবার একটা আসনেও জেতেনি। এবার জিতবে কি না, সেটাও প্রশ্ন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
best