ঢাকা, বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০, ২৫ চৈত্র ১৪২৬ আপডেট : ২৪ মিনিট আগে English
ব্রেকিং নিউজ
  •   রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণ ভিক্ষা চেয়েছে বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদ

প্রকাশ : ২৬ মার্চ ২০২০, ১০:২৪

প্রিন্ট

করোনাভাইরাস: নাগরিকরা প্রত্যেকে পাবেন ১২ শ ডলার

করোনাভাইরাস: নাগরিকরা প্রত্যেকে পাবেন ১২ শ ডলার
ফাইল ছবি

Evaly

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৪৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা ৯২৮। এমতাবস্থায় দেশটির সরকার জনগণের জন্য বেশ কিছু সুবিধা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছেন। সম্প্রতি দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে নাগরিকদের যাদের বার্ষিক আয় ৭৫ হাজার ডলারের নিচে জনপ্রতি তারা ১২০০ ডলার করে পাবেন। স্বামী স্ত্রী বা দম্পতি মিলে পাবেন ২৪০০ ডলার।

এছাড়া ১৭ বছরের প্রতি সন্তানের জন্য পাবেন ৫০০ ডলার। বার্ষিক আয় ৭৫ হাজার ডলার থেকে ৯৯ হাজার ডলার পর্যন্ত কমতে থাকবে এবং বছরে এককভাবে যারা ৯৯ হাজার ডলার আয় করেন তার এ সহযোগিতা পাবেন না। আমেরিকার ৯০ শতাংশ মানুষই ইতিহাসের সবচেয়ে বড় এ নাগরিক সুবিধা প্রাপ্তির যোগ্য হবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

নাগরিক সহযোগিতার অংশ হিসেবে কংগ্রেসের আইনে বলা হয়েছে, শিক্ষার্থীদের দেয়া ঋণের পেমেন্ট স্থগিত রাখা হয়েছে। কর্মহীনদের জন্য চার মাসের ভাতা প্রাপ্তই নিশ্চিত করা হয়েছে।

এসবের বাইরে ক্ষুদ্র ব্যবসায় ঋণ দেয়া, এয়ারলাইনস কোম্পানিসহ বড় শিল্প প্রতিষ্ঠানেও সহযোগিতার অর্থ আছে এ ফেডারেল অনুদানে। বাড়ির মালিকদের ফেডারেল ব্যাকড মর্টগেজের বিলম্ব ফি দুই মাসের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে। এ জন্য বাড়ির মালিকদের ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করত হবে।

ভাড়াটেদের দুই মাসের জন্য উচ্ছেদ করা যাবে না। তাদের ওপর বাড়ির মালিকেরা বিলম্ব ফি আরোপ করতে পারবে না। চার মাসের মধ্যে বাড়ি ছেড়ে দিতে ভাড়াটেদের বলতে পারবে না।

এদিকে নিউইয়র্কে যারা কোভিড-১৯ বা করোনাভাইরাসের কবলে পড়ে যারা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন তাদের বেকারভাতা দেয়া হচ্ছে। দ্রুতই এ ভাতার আবেদন প্রক্রিয়া করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ জার্নালে আরো পড়তে পারেন:

> করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর আগে যা বললেন চিকিৎসক

> বিদেশী নাগরিকদের সহযোগিতার আশ্বাস পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

> করোনায় আক্রান্ত সাংবাদিক

> করোনা আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াবে বিসিবি

> করোনা থেকে মুক্তি পেতে পঞ্চাঙ্গ শান্তি স্বস্ত্যয়ন

> কোয়ারেন্টাইনে খালেদা জিয়া

> কোয়ারেন্টাইন না মানায় ব্যবসায়ীকে জরিমানা

> পিপিই ছাড়া চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশনা স্থগিত

> করোনা নিয়ে গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা

> ইতালিতে মৃত্যু বেড়েছে, কমেছে আক্রান্তের হার

> করোনায় আরও একজন মারা গেছেন, নতুন রোগী নেই​

> করোনা প্রতিরোধে নির্দেশনা মেনে চলার আহবান প্রধানমন্ত্রীর

> করোনাভাইরাস: ফেসবুকে লিখে ময়মনসিংহ ও বরিশালে শিক্ষক বরখাস্ত

তাছাড়া সবেতন পারিবারিক ছুটি দেয়া হচ্ছে। খাদ্য নিরাপত্তার জন্য ফুড স্ট্যাম্পের আবেদন দ্রুততার সঙ্গে মঞ্জুর করা হচ্ছে। নিচের লিংকগুলো ব্যবহার করে প্রয়োজনীয় সব আবেদন করা যাবে। নিজে না পারলে পরিবারের কারও সাহায্য নিয়ে আবেদন করার জন্য পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

>https://paidfamilyleave.ny.gov/COVID19

>https://www.cdc.gov/coronavirus/2019-ncov/index.html

SNAP (Food Stamps) ফুড স্ট্যাম্পের জন্য

>https://a069-access.nyc.gov/accesshra/login

জটিল মানসিক সমস্যার জন্য,

>https://www1.nyc.gov/site/dfta/services/find-help.page

Hotline ২১২-২৪৪-৬৪৬৯

ক্ষুদ্র ব্যবসায় সহযোগিতা ও ঋণ গ্রহণের জন্য,

NYC Small Business HELP / Grant / Loan

>https://www1.nyc.gov/…/busin…/covid19-business-outreach.page

নিউইয়র্কের শিক্ষা বিভাগের যাবতীয় সহযোগিতা ও তথ্যের জন্য,

NYC Department of Education

শিক্ষা কার্যক্রমে অংশ নেয়ার জন্য বিনামূল্যে ইলেকট্রনিক ডিভাইসের জন্য,

>https://coronavirus.schools.nyc/RemoteLearningDevices

কারও ঘরে ইন্টারনেট না থাকলে বিনা মূল্যে ইন্টারনেট পাওয়ার জন্য: To enroll, call Spectrum at ৮৪৪-৪৮৮-৮৩৯৫.

এসব ছাড়াও যাদের অভিবাসন কাগজপত্রে জটিলতা আছে, বৈধতার কাগজপত্র নেই তারা নানা চ্যারিটিতে সাহায্যের আবেদন করতে পারবেন। এসব সহযোগিতার জন্য কোনো অভিবাসন পরিচয় জিজ্ঞাসা করা হয় না অধিকাংশ ক্ষেত্রে।

>Catholic Charities Community Services, Archdiocese of New York Helpline at ১-৮৮৮-৭৪৪-৭৯০০ - food resources and support for seniors.

>Immigrant and Refugee Services - Email [email protected] or call ২১২-৪১৯-৩৭০০.

>Call ৮৮৮-NYC-WELL (৮৮৮-৬৯২-৯৩৫৫)

এছাড়া নিউইয়র্কে যে কোনো সমস্যায় নাগরিকদের জন্য জরুরি নম্বরের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যে কোনো নাগরিক ২৪ ঘণ্টা সব ধরনের সমস্যার জন্য যোগাযোগ করতে পারবেন ৩১১ নম্বরে।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৫ হাজার ৫২৭। দেশটির হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৩ হাজার ৪৭২ জন। এদের মধ্যে অন্তত ১ হাজার ৪১১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ পর্যন্ত ৩৯৩ জন রোগী চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

দেশটিতে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাসের ভয়াবহতা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করে বলেছে, বৈশ্বিক মহামারির পরবর্তী কেন্দ্র হতে পারে যুক্তরাষ্ট্র।

করোনাভাইরাস সঙ্কটে মার্কিন অর্থনীতি ও জনগণের জন্য দুই ট্রিলিয়ন ডলার প্রণোদনা প্যাকেজের একটি চুক্তিতে সম্মত হয়েছে হোয়াইট হাউস এবং সিনেট।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথমবার ধরা পড়ে করোনাভাইরাস। ইতিমধ্যেই বিশ্বের অন্তত ১৯৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস।

বিশ্বজুড়ে এতে আক্রান্ত হয়েছেন অন্তত ৪ লাখ ৬৩ হাজার ৪১৮ জন, মারা গেছেন ২০ হাজার ৯১২ জন। এছাড়া, করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন মোট ১ লাখ ১৩ হাজার ৮০২ জন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

আরো পড়ুন:

> করোনায় মৃতের সংখ্যা ২১ হাজার ছাড়াল

> করোনাভাইরাস: রাজধানীতে ১০ টাকা কেজিতে চাল মিলবে

> করোনায় নিউইয়র্কে একই দিনে ৫ বাংলাদেশির মৃত্যু

> ইতালিতে দীর্ঘ হচ্ছে লাশের সারি, আরও ৬৮৩ মৃত্যু

> করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে একদিনেই আক্রান্ত ১০ হাজার, মৃত্যু শতাধিক

> স্পেনের উপ-প্রধানমন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত

> পাবনায় ডাক্তার নার্সসহ কোয়ারেন্টাইনে ৭৬৬ জন

> করোনা একটি যুদ্ধ, আমাদের জিততে হবে

> করোনাভাইরাস: বাড়িতে যা করবেন

> কোনো ধরনের জনসমাগম নয়: প্রধানমন্ত্রী

> করোনায় যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশি নারীর মৃত্য

> করোনায় প্রাথমিকে ‘বার্তা’ পাঠাবে মন্ত্রণালয়

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত