ঢাকা, রোববার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ৮ মিনিট আগে

জাপানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে ইয়োশহিডি

  জার্নাল ডেস্ক

প্রকাশ : ০১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:২৬

জাপানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে ইয়োশহিডি
জার্নাল ডেস্ক

জাপানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন দেশটির সরকারের উচ্চ পর্যায়ের মুখপাত্র ইয়োশহিডি সুগা। রয়টার্সের প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওযা গেছে।

দেশটির ক্ষমতাসীন দল লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) লিডারশিপ ভোট কমানোর সিদ্ধান্তই ক্ষমতার কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছে সুগাকে।

স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, ইতিমধ্যে সুগা এলডিপির বড় একটি অংশের সর্মথন পেয়েছেন যেটা তাকে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে শক্ত ভিত গড়ে দিয়েছে। স্বাস্থ্যগত কারণে গেল শুক্রবার হঠাৎ করেই প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেন আবে। তার পদত্যাগের পর ক্ষমতাসীন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনে ১৪ সেপ্টেম্বর ভোটের পরিকল্পনা করেছে।

এদিকে গণমাধ্যম পরিচালিত জনমত জরিপগুলোতে দেখা যাচ্ছে, আবের উত্তরসূরি হিসেবে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা পাচ্ছেন সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী শিগেরু ইশিবা। আবার জনগণের মধ্যে জনপ্রিয় হলেও এলডিপি পার্টিতে তার সমর্থন কম।

অন্যদিকে, এলডিপি’র নীতি বিষয়ক প্রধান ফুমিও কিশিদা জনমত জরিপগুলোতে সবচেয়ে পিছিয়ে আছেন। আর চিফ কেবিনেট সেক্রেটারি সুগা জনসমর্থনের দিক থেকে আছেন দ্বিতীয় স্থানে। তবে জাপানের নিয়মানুযায়ী জনগণের ভোটে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন হয় না বরং দেশটির পার্লামেন্টারি রাজনৈতিক ব্যবস্থায় আইনপ্রণেতারাই প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন করে থাকেন। সেই বিচারে এগিয়ে আছেন ৭১ বছর বয়সী সুগা।

যদিও সুগা এখনো জনসম্মুখে তার প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়ে কিছুই জানাননি। তবে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, তার নির্বাচনের ইচ্ছা আছে। জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী পদের প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়টি তিনি বুধবার জনসম্মুখে ঘোষণা করবেন।

মঙ্গলবার এলডিপি তাদের জেনারেল কাউন্সিলে সিদ্ধান্ত নেয় যে, ফুল-স্কেল ফরম্যাটের বদলে এবার তারা সাধারণ পদ্ধতিতে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করবেন।

দলটির চেয়ারম্যান সুনিচি সুজুকি জেনারেল কাউন্সিলের পর গণমাধ্যমকে বলেন, ’ফুল-স্কেল ফরম্যাটে নেতা নির্বাচন করতে গেলে আমাদের আরও দুই মাসের বেশি সময় লাগবে। যেটা জাপানের বাজেট এবং করোনার কারণে ক্ষতি হওয়া অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব ফেলবে।’

তবে অন্য প্রার্থীরা এই নিয়মের বিরোধিতা করেছেন। সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী শিগেরু ইশিবা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘গণতন্ত্র কিংবা দল কোনোটির জন্যই এই নিয়মটি ভালো হবে না।’

বাংলাদেশে জার্নাল/ এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত