ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮ আপডেট : ১৭ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০২১, ১৬:৩৮

প্রিন্ট

পশ্চিমবঙ্গে পরবর্তী রাজ্যপাল হতে পারেন আরিফ মহম্মদ খান

পশ্চিমবঙ্গে পরবর্তী রাজ্যপাল হতে পারেন আরিফ মহম্মদ খান

ময়ুখ বসু, কলকাতা

পশ্চিমবঙ্গে কি রাজ্যপালের দায়িত্ব ছাড়ছেন জগদীপ ধনখড়ের? রাজনৈতিক মহলে চড়ছে জল্পনা। ইতিমধ্যে তিন দিনের সফরে রাজধানী দিল্লিতে গিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। সেখানে গিয়ে তার একাধিক সরকারি বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

জানা গিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গেও বৈঠক করার কথা রয়েছে তার। এদিকে দিল্লি যাওয়ার আগে তিনি যেভাবে রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়ে গিয়েছেন তা একরকম বেনজির বলা চলে। আর এখানেই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের বিদায় নিয়ে শুরু হয়েছে নানা জল্পনা।

রাজনৈতিক মহলের মতে, তিনি রাজ্য ছেড়ে যাওয়ার আগে কড়া ভাষায় কি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়ে গেলেন? রাজ্যে আর ফিরবেন না বলেই কি তিনি এই চিঠি লিখলেন? যা নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে ঘুরপাক খাচ্ছে নানা গুঞ্জন। মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা যে চিঠির কথা তিনি প্রকাশও করে দেন।

এরপরেই রাজ্যের স্বরাষ্ট্রদপ্তরের তরফে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলা হয়, মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠি প্রকাশ্যে আনা উচিত নয়। এদিকে রাজ্যপাল দিল্লি যাওয়ার পরেই রাজ্যপালকে কড়া আক্রমণ করেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

ট্যুইটারে তিনি লেখেন, আঙ্কেলজি জানিয়েছেন, তিনি ১৫ জুন দিল্লি যাচ্ছেন। এরপরেই মহুয়া কটাক্ষ করে লেখেন, বাংলার রাজ্যপাল আমাদের জন্ন্য এটুকু করবেন, আর ফিরবেন না। ফলে তৃণমূল মহলে রাজ্যপালের বাংলায় আর না ফেরা নিয়ে নানা জল্পনার পারদ চড়ছে। যদিও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় জানিয়ে দিয়েছেন, ১৮ জুন বিকালে রাজ্যে ফিরে আসছেন তিনি।

উল্লেখ্য, বাংলায় ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের পর রাজ্যে রাজ্যপাল হিসাবে নিয়োগ হন জগদীপ ধনখড়। তবে রাজ্যে পা রাখার পর থেকেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে বিভিন্নন সময়ে রাজ্য সরকারের নানা কাজের জোরালো ভাষায় প্রতিবাদ করেন তিনি। এমনকি রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়েও সরাসরি মন্তব্য করতেও দ্বিধা করেননি। এদিকে বাংলায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের পর কে রাজ্যপাল হতে পারেন তা নিয়ে জল্পনা তীব্র হচ্ছে।

সেক্ষেত্রে বিভিন্ন সুত্রের খবর, বাংলায় একুশের নির্বাচনে বিজেপি কাঙ্খিত ফল করতে না পারায় এবার বাংলার দায়িত্ব থেকে সরানো হতে পারে ধনখড়কে। তার জায়গায় রাজ্যপাল হতে পারেন আরিফ মহম্মদ খান। একটা সময়ে রাজীব গান্ধীর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিলেন এই আরিফ মহম্মদ খান। পরে তিনি জনতা দলে যোগ দেন। তারপর তিনি বিজেপিতে নাম লেখান। আরিফ মহম্মদ খান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ঘনিষ্ঠ বলেও পরিচিত। কেরলে গত বিধানসভা নির্বাচনে কেরল সরকারের সঙ্গেও বিরোধে জড়িয়ে পড়েন আরিফ মহম্মদ খান। ফলে জগদীপ ধনখড়ের জায়গায় আরিফ মহম্মদ খান বাংলাতে এলেও তিনিও যে মমতা সরকারকে খুব একটা স্বস্তিতে থাকতে দেবেন না তা হয়তো বলাই যায়। অন্তত তেমনটাই ধারণা রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহলের।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত