ঢাকা, সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮ আপডেট : ৪ মিনিট আগে

প্রকাশ : ২৩ জুন ২০২১, ১৬:৩৯

প্রিন্ট

ত্রিপুরায় বিজেপি ভেঙে ‘মেগা যোগদান মেলা’ করতে চলেছে তৃণমূল

ত্রিপুরায় বিজেপি ভেঙে ‘মেগা যোগদান মেলা’ করতে চলেছে তৃণমূল

ময়ুখ বসু, কলকাতা থেকে

পশ্চিমবাংলায় একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর মুকুল রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় শুধু পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যেই নয়, ত্রিপুরাতেও বিজেপি বড়োসড়ো ভাঙনের মুখে দাঁড়িয়েছে। ত্রিপুরা তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি আশিষ লাল সিং দাবি করেছেন, বিজেপির প্রায় ১৫ হাজার কর্মী সমর্থক তৈরি হয়ে রয়েছেন তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জন্য। খুব শিগগিরই করোনার প্রকোপ কমলেই তাদের তৃণমূলে নেওয়ার জন্য মেগা যোগদান মেলা করা হতে পারে। সেক্ষেত্রে জুন মাসের শেষে বা জুলাই মাসের প্রথম দিকে এই মেগা যোগদান মেলা করতে চাইছে তৃণমূল নেতৃত্ব।

মূলত, মুকুল রায় তৃণমূলে ফেরার পরেই যে ত্রিপুরার মাটিতে তৃণমূলের শক্তি বৃদ্ধি ঘটেছে তা স্পষ্ট। তার উপর ত্রিপুরায় মুকুলের ভাবশিষ্য বলে পরিচিত সুদীপ রায় বর্মণ যদি তৃণমূলে যোগ দেন তাহলে তাঁর হাত ধরে বিজেপির একটি বিরাট অংশ তৃণমূলে যোগদান করবে তা বলাই যায়। এমনিতেই সুদীপ রায় বর্মণ বিজেপিতে কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছেন। ফলে তিনি যে কোনওসময়েই মুকুল রায়ের হাত ধরে তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন।

আশিষ লাল সিংয়ের কথায়, ত্রিপুরার মানুষ গত কয়েক বছরে এমনিতেই বিজেপির প্রতি বীতশ্রদ্ধ হতে শুরু করেছেন। তাই তাঁরা এখন একটা প্ল্যাটফর্ম চাইছেন। আর সেই প্ল্যাটফর্ম হতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিকে রাজনৈতিক মহলের মতে, ত্রিপুরার মতো রাজ্যে যদি একসঙ্গে ১৫ হাজার বিজেপির নেতা কর্মী তৃণমূলে যোগ দেন তাহলে বিজেপির কোমর ভেঙে যাবে। ফলে ত্রিপুরার বুকেও জোয়ার আসবে তৃণমূলের। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বাঙালি অধ্যুষিত ত্রিপুরায় পরিবর্তনের ডাক দিতে চাইছে তৃণমূল। আর সেক্ষেত্রে বিজেপির গোষ্ঠীকোন্দলকে কাজে লাগিয়ে আপাতত দল ভারী করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে তৃণমূলের তরফে। যেখানে দাঁড়িয়ে মুকুল রায় হয়ে উঠছেন তৃণমূলের বড়ো অস্ত্র। কারণ, এর আগে ত্রিপুরায় সংগঠন করেছেন মুকুল রায়। তাঁর সেই অভিজ্ঞতার পাশাপাশি এবার তৃণমূলের যুব সমাজের আইকন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভিন রাজ্যের দায়িত্ব দিয়ে ত্রিপুরা জয়ের ছক নেওয়া হয়েছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, মুকুল এবং অভিষেক যদি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ত্রিপুরায় ঝাঁপিয়ে পড়ে সেক্ষেত্রে ত্রিপুরায় সাফল্য আসা অস্বাভাবিক কিছু নয়। এদিকে বিশ্বস্ত সুত্রের খবর, মুকুল রায় ইতিমধ্যেই সুদীপ রায় বর্মন ও সুদীপ ঘনিষ্ঠ বিধায়কদের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করে দিয়েছেন। আর তার ফলেই এখন ত্রিপুরায় গেরুয়া শিবিরে বড়োসড়ো ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল-ওআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত