ঢাকা, রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮ আপডেট : ১৩ মিনিট আগে

যে কারণে অলিম্পিক শুরুর একদিন আগে পরিচালক বরখাস্ত

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২৩ জুলাই ২০২১, ০৩:৩৪  
আপডেট :
 ২৩ জুলাই ২০২১, ০৫:৩৪

যে কারণে অলিম্পিক শুরুর একদিন আগে পরিচালক বরখাস্ত
নিজস্ব প্রতিবেদক

টোকিও অলিম্পিক শুরুর মাত্র একদিন আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরিচালক কেন্তারো কোবায়াশিকে বরখাস্তের কারণ ‘নির্মম রসিকতা’। অনলাইনে তার পুরনো কিছু ফুটেজ প্রকাশিত হয়েছে, যেগুলো দেখা যায় তিনি হলোকাস্ট নিয়ে রসিকতা করছেন। যদিও ফুটেজগুলো নব্বই দশকের, তবু এই রসিকতায় তার জন্য কাল হয়ে দাঁড়াল।

জাপানের অলিম্পিক প্রধান সিকো হাশিমোতো বলেছেন, ভিডিওটি 'ইতিহাসের বেদনাদায়ক তথ্য' নিয়ে উপহাস করেছে। গেমসকে প্রভাবিত করার করার মতো কেলেঙ্কারি গুলোর মধ্যে এটি সর্বশেষ ঘটনা।

কয়েক দিন আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের এক সঙ্গীত কম্পোজারের পদত্যাগের পর এই ঘটনা ঘটলো। ওই কম্পোজার স্কুলে থাকার সময় এক প্রতিবন্ধী সহপাঠীকে হয়রানি করেছিল বলে অভিযোগ সামনে আসার পর তিনি পদত্যাগ করেন।

গত মার্চ মাসে ক্রিয়েটিভ চিফ হিরোশি সাসাকি স্থূল দেহের অধিকারী বা প্লাস-সাইজের কৌতুক অভিনেতা নাওমি ওয়াতানাবে ‌'অলিম্পিগ' হিসাবে উপস্থিত হতে পারেন বলে উপহাস করেন। পরে তিনি ক্ষমা চেয়েছিলেন।

ফেব্রুয়ারিতে, ইয়োশিরো মরিকে জোর করে আয়োজক কমিটির প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয় নারীদের নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করার কারণে। এসব মন্তব্যকে 'অগ্রহণযোগ্য' বলে উল্লেখ করা হয়।

মরির উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছিল যে, তিনি বলেছেন নারীরা খুব বেশি কথা বলে এবং সেজন্যই নারী বোর্ড পরিচালকের সঙ্গে বৈঠকে 'অনেক সময়' লাগে। সর্বশেষ এই কেলেঙ্কারিটির জন্য সাবেক কৌতুক অভিনেতা কোবায়াশি কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েন।

২৩ বছর আগে তিনি আরেক জন কৌতুক অভিনেতার সাথে মিলে একটি দৃশ্যে অভিনয়ের সময় ওই কৌতুকটি করেছিলেন। তারা দু'জনই শিশুদের বিনোদন দেয়ার অভিনয় করছিলেন।

কোবায়াশি তার বরখাস্তের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে একটি বিবৃতিও দিয়েছেন। এতে তিনি বলেছেন, বিনোদনের কারণে মানুষের অস্বস্তি অনুভব করা উচিত নয়। আমি বুঝতে পেরেছি যে, সে সময় আমার বোকার মতো শব্দ চয়ন ভুল ছিল এবং আমি তার জন্য অনুতপ্ত।

কোবায়াশি তার কিছু সহকর্মীর দিকে ফিরে কিছু কাগজের পুতুলকে উল্লেখ করে বলেছিলেন, এরা হচ্ছে সেই সময়ের যখন আপনি বলেছিলেন 'চলেন হলোকাস্ট নিয়ে খেলি।

সাইমন উইসেন্থাল সেন্টারের (এসডাব্লিউসি) সহযোগী ডিন এবং গ্লোবাল সোশ্যাল অ্যাকশন ডিরেক্টর র‍্যাবাই এব্রাহাম কুপার বলেছেন, কেউ যতই সৃজনশীল হোক না কেন, নাৎসি গণহত্যার শিকারদের নিয়ে উপহাস করার অধিকার তার নেই।

বাংলাদেশ জার্নাল- ওআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত