ঢাকা, শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯ আপডেট : ১০ মিনিট আগে

শিরিনের শেষকৃত্যে হামলা নিয়ে ক্ষুব্ধ যুক্তরাষ্ট্র

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ১৬ মে ২০২২, ১২:০৪

শিরিনের শেষকৃত্যে হামলা নিয়ে ক্ষুব্ধ যুক্তরাষ্ট্র
ছবি: আনন্দবাজার অনলাইন
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত মার্কিন সাংবাদিক শিরিন আবু আকলের শেষকৃত্যের মিছিলে ইসরায়েলের পুলিশের হামলা নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রসচিব অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন এক বিবৃতিতে বলেন, ‘শিরিনের শেষকৃত্যের মিছিলে ইসরায়েলের পুলিশের হস্তক্ষেপের দৃশ্য দেখে আমরা উদ্বিগ্ন। সম্মানের সঙ্গে প্রিয়জনের শেষকৃত্য করার অধিকার সব পরিবারের আছে।’ হোয়াইট হাউসের প্রচারসচিব জেন সাকিও বলেন, ‘ওই দৃশ্য নিঃসন্দেহে উদ্বেগের।’

সোমবার আনন্দবাজার অনলাইন এ খবর জানিয়েছে।

শিরিনের মৃত্যুর নিন্দা করে বিবৃতি দিয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সব সদস্য রাষ্ট্র। ইসরায়েলের বিষয়ে নিরাপত্তা পরিষদে এ ধরনের ঐক্য বিরল বলেই মত কূটনীতিকদের। ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি জানিয়েছে নিরাপত্তা পরিষদ। শেষকৃত্যের মিছিলে ইসরায়েলের পুলিশের হামলার সমালোচনা করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস।

১১ মে ফিলিস্তিনের পশ্চিমতীরে জেনিন শরণার্থী শিবিরে সহিংসতার খবর সংগ্রহ করছিলেন আল জাজিরার সাংবাদিক শিরিন। তখনই গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় তার। ইসরায়েলি বাহিনীই তার মৃত্যুর জন্য দায়ী বলে দাবি করেছে আল জাজিরা।

ইসরায়েল প্রথমে দাবি করে, সশস্ত্র ফিলিস্তিনিরাই সম্ভবত এ ঘটনার জন্য দায়ী। পরে অবশ্য পিছু হটে তারা জানায়, ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। জঙ্গিদের উদ্দেশে ছোড়া ইসরায়েলের স্নাইপারের গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে শিরিনকে আঘাত করে থাকতে পারে। আবার ফিলিস্তিনিদের গুলিতেও মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে তার।

এরই মধ্যে সামনে আসে শিরিনের শেষকৃত্যে ইসরায়েলের পুলিশের হামলার দৃশ্য। ইসরায়েলের দখলে থাকা পূর্ব জেরুসালেমের সেন্ট জোসেফ হাসপাতাল থেকে শিরিনের দেহ বেরোনোর পরই শেষকৃত্যের মিছিলে যারা ফিলিস্তিনের পতাকা নিয়ে যাচ্ছিলেন, তাদের উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে ইসরায়েলের পুলিশ। পতাকা কেড়ে নেয়া হয়। ধাক্কাধাক্কিতে শিরিনের কফিনবাহকেরাও সমস্যায় পড়েন।

ইসরায়েলের পুলিশের দাবি, প্রকাশ্যে ফিলিস্তিনি পতাকা ওড়ানো ইসরায়েলের আইনে নিষিদ্ধ। উত্তেজনা যাতে না বাড়ে সে জন্য শেষকৃত্যের সময়ে ফিলিস্তিনি জাতীয়তাবাদী গান গাইতেও নিষেধ করেছিল তারা। কিন্তু শেষকৃত্যে সামিল ফিলিস্তিনিদের একাংশ সেই নিষেধাজ্ঞা না মানায় পুলিশ পদক্ষেপ করতে বাধ্য হয়।

বাংলাদেশ জার্নাল/টিটি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত