ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ আপডেট : ১১ মিনিট আগে

বিরল মেরুপ্রভার মুখোমুখি হলেন কানাডাবাসী

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ১২ আগস্ট ২০২২, ১৫:৫৮

বিরল মেরুপ্রভার মুখোমুখি হলেন কানাডাবাসী
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকৃতি বিস্ময়ের খনি। প্রতি মুহূর্তেই সে নানা উপহার সাজিয়ে নিয়ে সামনে হাজির হয়। আর সেসব দেখে রীতিমতো মুগ্ধ মানবজাতি। সম্প্রতি তেমনই এক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেন কানাডাবাসী। তার আকাশ ভরে উঠল বিরল রকমের সবুজ রঙে। জানা গেছে, সূর্য থেকে নির্গত একটি জিওম্যাগনেটিক স্টর্ম বা ভূ-চৌম্বকীয় ঝড় গত সোমবার রাতে এসে পৌঁছেছিল পৃথিবীতে। এর প্রভাবে দক্ষিণ কানাডার আকাশে চমৎকার ও বিরল এই সবুজ আভা দেখা গেল। যা অরোরা বা মেরুপ্রভা হিসেবেই বিশেষ পরিচিত।

ওই মেরুপ্রভার ছবি ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। অরোরা তৈরির শর্ত হল, সূর্য থেকে তড়িদাহত সৌরকণা এসে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের উপরের স্তরে আঘাত করবে। পৃথিবীর চুম্বকক্ষেত্রের প্রভাবে সৌরকণাগুলি পৌঁছয় দুই মেরুতে। এ কারণেই মেরু অঞ্চল থেকে অরোরা ভালো দেখা যায়। এর মধ্যে নর্দার্ন লাইটসকে অরোরা বোরিয়ালিস বলা হয়। সাউদার্ন লাইটস অরোরা অস্ট্রালিস হিসেবে পরিচিত।

এই নর্দার্ন বা সাউদার্ন লাইটসের মতো তৈরি হয় স্ট্রং থার্মাল এমিশন ভেলোসিটি এনহ্যান্সমেন্ট, যা স্টিভ নামে পরিচিত। ২০১৬ সালে কানাডার বিজ্ঞানীরা স্টিভ আবিষ্কার করেন। এই স্টিভ এক বিশেষ মেরুপ্রভা। স্টিভ সাধারণত রাতের আকাশে দীর্ঘ ফিকে লাল রঙের রেখার মতো দেখায়। তবে কখনো কখনো এটি সমান্তরাল সবুজ ফিতের মতোও দেখতে লাগে।

অরোরা দেখা এবং তা ক্যামেরায় ধরে রাখার জন্য বহু মানুষ অপেক্ষায় থাকেন। এবারেও একই ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার অ্যালান ডায়ার নামের এক ব্যক্তি টুইটারে মেরুপ্রভার ছবি পোস্ট করেন। ওই পোস্টে তিনি লেখেন, গত রাতে স্টিভ নামের মেরুপ্রভার দারুণ দৃশ্য দেখা গেল। স্টিভ ৪০ মিনিট পর্যন্ত স্থায়ী হয়। সোমবার রাতে নর্দার্ন লাইটস বিবর্ণ হয়ে যায়, তখন এই অদ্ভুত বিরল সবুজ আভা দেখা দেয়।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত