ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ১ মিনিট আগে
শিরোনাম

ব্রাজিলে এক আদিবাসী সম্প্রদায়ের শেষ ব্যক্তির মৃত্যু

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ৩০ আগস্ট ২০২২, ১৮:০৮  
আপডেট :
 ৩০ আগস্ট ২০২২, ১৮:১৬

ব্রাজিলে এক আদিবাসী সম্প্রদায়ের শেষ ব্যক্তির মৃত্যু
ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ব্রাজিল-বলিভিয়া সীমান্তে রন্ডোনিয়া রাজ্যের জঙ্গলের তানারু আদিবাসী অঞ্চলে বসবাস করা এক আদিবাসী সম্প্রদায়ের শেষ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। গত ২৬ বছর ধরে ওই ব্যক্তি একাই এই জঙ্গলে বসবাস করছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, আনুমানিক ৬০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে আল-জাজিরা ও বিবিসি।

ব্রাজিলের ন্যাশনাল ইন্ডিয়ান ফাউন্ডেশন (ফুনাই) জানিয়েছে, যারা ১৯৯৬ সাল থেকে লোকটির ওপর নজার রাখছিলো, লোকটি নাম জানা যায়নি। বিশ্বের মানুষের কাছে ‘দ্য মান অব দ্য হোল’বা গর্ত মানব নামে পরিচিত ছিলেন ওই ব্যক্তি। রুটিন টহল চলাকালীন ফুনাই এজেন্ট আলতাইর হোসে তার খড়ের কুঁড়েঘরের বাইরে মরদেহ দেখতে পান। তবে সেখানে সহিংসতার কোনো চিহ্ন ছিল না।

স্থানীয় মিডিয়া জানিয়েছে, যে লোকটির দেহ ম্যাকাও পাখির পালকে আবৃত ছিল, একজন বিশেষজ্ঞ অনুমান করেছেন যে আদিবাসি লোকটি জানতেন যে তিনি মারা যেতে চলেছেন।

ধারণা করা হয় ১৯৭০-এর দশকের গোড়ার দিকে তার গোত্রের অধিকাংশই জমি সম্প্রসারণ করতে চাওয়া পশুপালকদের হামলায় নিহত হয়েছিল। ১৯৯৫ সালে ওই ব্যক্তির সম্প্রদায়ের ছয়জনকে হত্যা করা হয়। তারপর থেকে তিনিই তার সম্প্রদায়ের একমাত্র জীবিত ব্যক্তি ছিলেন।

আদিবাসী ওই ব্যক্তি গভীর গর্ত করে কখনো সেসব পশু শিকারে ব্যবহার করতেন। আবার কখনো সেগুলোতে নিজেই লুকিয়ে থাকতেন। গর্ত করার কারণেই তার নাম ‘দ্য ম্যান অব দ্য হোল’। তার মৃত্যুর মাধ্যমে পুরো একটি আদিবাসী সম্প্রদায়ের শেষ হয়ে গেল।

সাম্প্রতিকতম সরকারি তথ্য অনুসারে, প্রায় ২১ কোটি মানুয়ের দেশ ব্রাজিলে ৩০০ টিরও বেশি স্বতন্ত্র গোষ্ঠীর অন্তর্গত প্রায় ৮ লাখ আদিবাসী মানুষ বাস করে। যার অর্ধেকেরও বেশি আমাজনের জঙ্গলে বাস করে। তবে অবৈধভাবে বন ও প্রাকৃতিক সম্পদের নষ্ট করার কারণে তারা তাদের টিকে থাকা হুমকিতে পড়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত