ঢাকা, শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ২৩ মিনিট আগে
শিরোনাম

সেনা অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত বুরকিনা ফাসোর সামরিক শাসক

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫:৫২  
আপডেট :
 ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৬:০৭

সেনা অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত বুরকিনা ফাসোর সামরিক শাসক
ক্যাপ্টেন ইব্রাহিম ট্রাওরে। ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোর সামরিক শাসক পল-হেনরি দামিবাকে পদচ্যুত করে দেশটির সরকার ভেঙে দেয়া দিয়েছেন সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন ইব্রাহিম ট্রাওরে। এ নিয়ে চলতি বছরই বুরকিনা ফাসোতে দ্বিতীয় অভ্যুত্থানের ঘটনা ঘটল।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, শুক্রবার স্থানীয় সময় রাতে সশস্ত্র সেনারা রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভিশনে হাজির হয়ে এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতাচ্যুত করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিবৃতিতে সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন বলেন, দামিবাকে ক্ষমতাচ্যুত করে সরকার ভেঙে দেয়া হয়েছে এবং সংবিধান স্থগিত করা হয়েছে। দেশে ক্রমবর্ধমান সশস্ত্র বিদ্রোহ মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়েছেন দামিবা। তাই তাকে অপসারণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সেনাবাহিনীর একদল কর্মকর্তা।

আল কায়েদা এবং আইএসআইএসের সঙ্গে জড়িত বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলো দীর্ঘদিন ধরে দেশটিতে লড়াই করছে।

এদিকে অভ্যুত্থানের পর পরই ইব্রাহিম ত্রাওরে সীমান্তগুলো অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছেন এবং সব রাজনৈতিক কার্যক্রম স্থগিত করেছেন। একই সঙ্গে তিনি শুক্রবার রাত ৯টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করেন।

চলতি বছরের ২৪ জানুয়ারি অভ্যুত্থানের পর দামিবা যেভাবে হাজির হয়েছিলেন, সেরকম করেই ত্রাওরেও সৈন্য পরিবেষ্টিত হয়ে টেলিভিশনে হাজির হন এবং সরকার বিলুপ্ত ও সংবিধান স্থগিত করে, সীমান্ত বন্ধ রাখার ও রাত্রিকালীন কারফিউ জারির ঘোষণা দেন।

অভ্যুত্থানের পর পূর্ববর্তী প্রেসিডেন্ট দামিবা কোথায়, কী অবস্থায় আছেন, শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তা জানা যায়নি।

ট্রাওরে স্বাক্ষর করা এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পরিস্থিতির ক্রমাবনতির মুখে, আমরা বেশ কয়েকবারই চেষ্টা করেছি, দামিবা যেন নিরাপত্তার বিষয়ে বেশি মনোযোগ দেন। কিন্তু তিনি সেনাবাহিনী পুনর্গঠনে কর্মকর্তাদের দেয়া প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন এবং একই সামরিক কাঠামো বহাল রাখেন, যা পূর্ববর্তী শাসনগুলোর পতন ডেকে এনেছিল। টেলিভিশনে অন্য এক সৈন্য এ বিবৃতিটি পড়ে শোনান।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, আমরা যা করার লক্ষ্য ঠিক করেছিলাম, ক্রমেই বুঝতে পারি যে দামিবার পদক্ষেপে, তার আকাঙ্ক্ষার কারণে আমরা তা থেকে দূরে সরে যাচ্ছি। তাই আজ আমরা তাকে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিই।

নতুন একজন বেসামরিক বা সামরিক প্রেসিডেন্ট ও ক্ষমতা হস্তান্তর বিষয়ক নতুন চার্টার ঠিক করতে সব অংশীদারদের শিগগিরই ডাকা হবে বলেও বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/জিকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত