ঢাকা, শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ৩১ মিনিট আগে
শিরোনাম

রাশিয়-ইউক্রেন যুদ্ধের অবসানে এলন মাস্কের ‘শান্তি’ প্রস্তাবে জেলেনস্কির ক্ষোভ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৬:০০  
আপডেট :
 ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৬:০৫

রাশিয়-ইউক্রেন যুদ্ধের অবসানে এলন মাস্কের ‘শান্তি’ প্রস্তাবে জেলেনস্কির ক্ষোভ
এলন মাস্ক ইউক্রেন এবং রাশিয়ার মধ্যে একটি আলোচনার শান্তি প্রস্তাব করতে টুইটার ব্যবহার করেছিলেন। ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিশ্বের শীর্ষ ধনী এবং বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী এলন মাস্ক সোমবার রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ অবসানে এক টুইটার পোষ্টে একটি ‘শান্তি’ পরিকল্পনা প্রকাশ করেছেন। সে প্রস্তাবের ব্যাপারে মানুষের মতামত জানতে একটি জরিপও চালাচ্ছেন তিনি।

এলন মাস্ক প্রস্তাব করেছেন,গত সপ্তাহে ইউক্রেনের যে চারটি অঞ্চলকে রুশ ফেডারেশনে অন্তর্ভুক্ত করতে রাশিয়া গণভোট করেছে, সেখানে জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে নির্বাচন হতে হবে। মাস্ক লিখেছেন, মানুষ যদি চায়, সেখান থেকে রাশিয়া চলে যাবে।

এছাড়াও টুইটার পোস্টে টেসলার প্রধান নির্বাহী ক্রিমিয়াকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাশিয়ার অংশ বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি পরামর্শ দিয়েছেন, ক্রিমিয়ায় যেন পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা হয় এবং ইউক্রেন যেন নিরপেক্ষ আচরণ করে। নিজের পরিকল্পনার ব্যাপারে টুইটার ব্যবহারকারীদের হ্যাঁ অথবা না ভোট দিতে বলেছেন এলন মাস্ক।

এরপরই অন্য একটি টুইটে আরেকটি জরিপের জন্য প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন এলন মাস্ক। তিনি লিখেছেন, আসুন এটা চেষ্টা করে দেখি, দনবাস ও ক্রিমিয়াতে যারা বসবাস করে তাদেরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে তারা রাশিয়া নাকি ইউক্রেনের অংশ।

মাস্ক আরও বলেন, নিজের প্রস্তাবটি জনপ্রিয়তা পেল কি পেল না, তা নিয়ে তার কোনো মাথাব্যথা নেই। নিজের প্রস্তাবের পক্ষে যুক্তি দেখিয়ে তিনি বলেন, অহেতুক লাখো মানুষ মারা যাক, আমি চাই না।

টুইটারে এলন মাস্ক আরও লিখেছেন, রাশিয়ার জনসংখ্যা ইউক্রেনের চেয়ে তিন গুণ। সুতরাং গোটা যুদ্ধে ইউক্রেন জয় পাবে বলে মনে হচ্ছে না। আপনারা যদি ইউক্রেনের জনগণের কথা ভেবে থাকেন, তবে শান্তির পথে আসুন।

এদিকে এলন মাস্কের এ উদ্যোগের নিন্দা জানিয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি টুইটারে পাল্টা একটি জনমত জরিপ চালাচ্ছেন।

এলন মাস্কের প্রস্তাবের সমালোচনা করে ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি টুইটারে পাল্টা একটি পোস্ট দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, কোন এলন মাস্ককে আপনি বেশি পছন্দ করেন? প্রশ্নের নিচে সম্ভাব্য দুটি উত্তর লিখে যেকোনো একটিকে বেছে নিতে বলেছেন তিনি। উত্তর দুটি হলো, যিনি ইউক্রেনকে সমর্থন করেন এবং যিনি রাশিয়াকে সমর্থন করেন।

লিথুনিয়ার প্রেসিডেন্ট গিতানাস নাউস দাও এর সমালোচনা করেন। এক টুইটার পোস্টে তিনি বলেন, ‘প্রিয় এলন মাস্ক, কেউ যদি আপনার টেসলার চাকা চুরি করার চেষ্টা করে তবে তার মানে এ নয় যে তিনি ওই গাড়ি কিংবা চাকার বৈধ মালিক।

অন্যদিকে এলন মাস্কের এই প্রস্তাবের বিরোধীতা করেছেন ইউক্রেনপন্থী রাখো টুইটার ব্যবহারকারীরা। সেখানে মাস্ককে রাশিয়ার দালাল বলে আখ্যায়িত করা হয়।

এর জবাবে সোমবার আরেকটি টুইটারে পোস্টে মাস্ক লিখেছেন, ফেব্রুয়ারিতে, যখন রাশিয়ার আগ্রাসনের পর ইউক্রেনের ইন্টারনেট ব্যাহত হয়েছিল, তখন ইউক্রেনের ইন্টারনেট সচল করার জন্য কাজ করেছে তার প্রতিষ্ঠান স্টারলিঙ্ক। এরজন্য স্পেসএক্স-এর খরচ হয়েছে এখন পর্যন্ত ৮০ মিলিয়ন ডলার। তবে রাশিয়ার জন্য আমাদের সমর্থন ০ ডলার। এতে স্পষ্টতই, আমরা ইউক্রেনপন্থী।

সূত্র: রয়টার্স

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত