ঢাকা, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ১১ মিনিট আগে
শিরোনাম

উত্তর কোরিয়াকে জবাব দিতে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লো যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১২:৪০

উত্তর কোরিয়াকে জবাব দিতে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লো যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া
দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র প্রত্যেকে ২টি করে আর্মি ট্যাকটিক্যাল মিসাইল সিস্টেম (এটিএসিএমএস) ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বেশ কয়েকদিন ধরে উত্তপ্ত উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার সম্পর্ক। এর মধ্যে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে জাপানেরও সংঘাতে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। মঙ্গলবার জাপানের ওপর দিয়ে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উড়ে যাওয়া নিয়ে নতুন করে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের খামখেয়ালি আচরণের পাল্টা জবাব দিলো যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া। মঙ্গলবার ‘সি অব জাপানে’ ৪টি গ্রাউন্ড টু গ্রাউন্ড মিসাইল নিক্ষেপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া। কোরিয়ান সেনাবাহিনীর বরাতে একথা জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা ইয়োনহ্যাপ।

দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফ অব স্টাফ জানিয়েছন, দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র প্রত্যেকে ২টি করে আর্মি ট্যাকটিক্যাল মিসাইল সিস্টেম (এটিএসিএমএস) ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। এই মিসাইলগুলি ‘মক টার্গেট’-কে আঘাত করেছে।

এর আগে মঙ্গলবার জাপানের ওপর দিয়ে পারমানবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছিল পিয়াংইয়ং। মিসাইল নিক্ষেপের কথা আঁচ করেই হোক্কাইডো দ্বীপে জাপান সরকারের পক্ষ থেকে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছিল। এমনকী উদ্ধারকারী দলও প্রস্তুত করে রাখা হয়েছিল। এমনকী ট্রেন চলাচলও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক-ইওল এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার নিন্দা করেছেন। অন্যদিকে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস উত্তর কোরিয়ার এই মিসাইল পরীক্ষাকে নিয়মের লঙ্ঘন বলেই চিহ্নিত করেছেন।

এদিকে পিয়াংইয়ং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করার পর, দক্ষিণ কোরিয়া এবং মার্কিন যুদ্ধবিমানগুলি পীতসাগরে বোমাবর্ষণের মহড়া চালিয়েছিল বলে জানা গেছে।

সূত্র: এএফপি

উত্তর কোরিয়াকে জবাব দিতে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লো যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া

বেশ কয়েকদিন ধরে উত্তপ্ত উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার সম্পর্ক। এর মধ্যে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে জাপানেরও সংঘাতে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। মঙ্গলবার জাপানের ওপর দিয়ে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উড়ে যাওয়া নিয়ে নতুন করে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। উত্তর কোরিয়ার স্বৈরাচারী শাসক কিম জং উনের খামখেয়ালি আচরণের পাল্টা জবাব দিতে মাঠে নামল যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া। মঙ্গলবার পূর্ব সমুদ্রে ৪টি গ্রাউন্ড টু গ্রাউন্ড মিসাইল নিক্ষেপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া। যে সমুদ্র মিসাইল নিক্ষেপ করা হয়েছে, তা ‘সি অব জাপান’ নামে পরিচিত। কোরিয়ান সেনাবাহিনীর বরাতে একথা জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা ইয়োনহ্যাপ।

দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফ অব স্টাফ জানিয়েছন, যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া দুটি করে মার্কিন কোম্পানি লকহিড মার্টিনের তৈরি আর্মি ট্যাকটিক্যাল মিসাইল সিস্টেম বা (এটিএসিএমএস) নিক্ষেপ করেছে। এই মিসাইলগুলি ‘মক টার্গেট’-কে আঘাত করেছে।

এর আগে মঙ্গলবার জাপানের ওপর দিয়ে পারমানবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছিল পিয়াংইয়ং। মিসাইল নিক্ষেপের কথা আঁচ করেই হোক্কাইডো দ্বীপে জাপান সরকারের পক্ষ থেকে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছিল। এমনকী উদ্ধারকারী দলও প্রস্তুত করে রাখা হয়েছিল। এমনকী ট্রেন চলাচলও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক-ইওল এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার নিন্দা করেছেন। অন্যদিকে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস উত্তর কোরিয়ার এই মিসাইল পরীক্ষাকে নিয়মের লঙ্ঘন বলেই চিহ্নিত করেছেন।

এদিকে পিয়াংইয়ং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করার পর, দক্ষিণ কোরিয়া এবং মার্কিন যুদ্ধবিমানগুলি পীতসাগরে বোমাবর্ষণের মহড়া চালিয়েছিল বলে জানা গেছে।

সূত্র: এএফপি

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত