ঢাকা, শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ১০ মিনিট আগে
শিরোনাম

আগের দামেই টুইটার কিনতে চান এলন মাস্ক

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৩:১২  
আপডেট :
 ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৩:১৮

আগের দামেই টুইটার কিনতে চান এলন মাস্ক
ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

গত এপ্রিলে সোশ্যাল মিডিয়ার প্ল্যাটফর্ম টুইটার কেনা নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের গাড়িনির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী ও বিশ্বের শীর্ষ ধনী এলন মাস্ক। বেশ কয়েকদিন সেই প্রক্রিয়া বন্ধ থাকলেও আবারও টুইটার কেনার দিকে একধাপ এগোলেন মাস্ক। এর আগে তিনি যে দামে টুইটারকে কিনে নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছিলেন, আবার সেই দামে এই সোশ্যাল মিডিয়াকে কিনে নেয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন মাস্ক। আগে মাস্কের তরফে টুইটারের প্রতি শেয়ার ৫৪.২০ মার্কিন ডলার কেনার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। মঙ্গলবার ব্লুমবার্গে নিউজে এই খবরই প্রকাশিত হয়েছে।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টুইটার কিনে নেয়ার প্রস্তাব দিয়ে মাস্ক কর্তৃপক্ষকে একটি চিঠি লিখেছেন। তবে বিষয়টির গোপনীয়তা বজায় রাখার জন্য কোনও পক্ষই এই নিয়ে মুখ খোলেনি।

এদিকে, মাস্কের টুইটার কেনার খবর সামনে আসা মাত্রই বাজারে টুইটারে শেয়ারে দাম ঊর্ধ্বমুখী। টুইটারে শেয়ার দামে এক লাফে ১২.৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৪৭.৯৩ মার্কিন ডলার হয়েছে। অন্যদিকে মাস্কের টেসলা ইঙ্কের শেয়ারের দাম ৩ শতাংশ কমেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের তরফে দু’পক্ষের আইনজীবীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, গত এপ্রিলে ৪ হাজার ৪০০ কোটি মার্কিন ডলারে সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট টুইটার কিনতে চুক্তি করেন টেসলা প্রধান এলন মাস্ক। তবে এরপর থেকেই যেন তার আগ্রহ কমতে থাকে। প্রকাশ্যে তিনি টুইটার কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করেন, এর প্রকৃত মূল্য নিয়েও প্রশ্ন তোলেন এবং শেষপর্যন্ত মত পরিবর্তন করে চুক্তি বাতিলের ঘোষণা দেন।

প্রকৃত ব্যবহারকারীর সংখ্যা নিয়ে তাকে ভুল তথ্য দিয়েছে টুইটার এমন অভিযোগে গত জুলাই মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি থেকে বেরিয়ে যান এলন মাস্ক। এরপর ক্রয় প্রক্রিয়া এগিয়ে নিতে বাধ্য করার জন্য ডেলাওয়্যার চ্যান্সারি আদালতে তার নামে মামলা করে টুইটার কর্তৃপক্ষ। আগামী ১৭ অক্টোবর এর শুনানি শুরু হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু মঙ্গলবার ডেলাওয়্যারের বিচারক মামলাটি এখন কীভাবে এগোবে সে বিষয়ে একটি প্রস্তাব নিয়ে যেতে উভয়পক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন। এর সম্ভাব্য সমাধানগুলো হচ্ছে- টুইটার কর্তৃপক্ষ মামলাটি খারিজ করবে অথবা চুক্তি সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত বিচারকের এখতিয়ার বজায় থাকবে।

তবে এলন মাস্ক চুক্তি পুনর্বহালের ঘোষণা দেয়ার ফলে তিনি টুইটারের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ এনেছিলেন, আদালতে সেগুলোর বিষয়ে সম্ভবত আর কোনো কথা হবে না।

সূত্র: রয়টার্স

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত