ঢাকা, সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শিরোনাম

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে ব্যর্থতার কারণ রাজনৈতিক: জেনারেল বাজওয়া

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ২৪ নভেম্বর ২০২২, ১৯:৩৪  
আপডেট :
 ২৪ নভেম্বর ২০২২, ১৯:৪০

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে ব্যর্থতার কারণ রাজনৈতিক: জেনারেল বাজওয়া
জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া। ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পাকিস্তানের সেনা প্রধান পদে মেয়াদ শেষ হচ্ছে জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার। বৃহস্পতিবার সেনাপ্রধান হিসেবে জনগণের উদ্দেশে শেষ বক্তব্য রাখলেন বাজওয়া। আর এই শেষ বক্তৃতায় ১৯৭১ সালের বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি।

বিদায়ী ভাষণে বাজওয়া বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানের পরাজয় ছিল রাজনৈতিক ব্যর্থতা। এতে সেনাবাহিনীর কোনও হাত ছিল না বলেই দাবি বিদায়ী সেনাপ্রধানের। তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের যুদ্ধে পাকিস্তান সেনার ভূমিকা ও কার্যকারিতা নিয়ে খুব বেশি আলোচনা করা হয় না। তার মতে, অনেকেই এই বিষয়টি এড়িয়ে যায়। তাই দেশের সেনাবিরোধী চিন্তাভাবনারও সমালোচনা করেন তিনি।

পাকিস্তানের স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম দ্য ডনের প্রতিবেদন বলা হয়েছে, ভাষণে বাজওয়া দাবি করেন, এই যুদ্ধে ৯২ হাজার নয় ৩৪ হাজার পাকিস্তানি সেনা লড়াই করেছিলো। তিনি জানান, ভারতের ২ লাখ ৫০ হাজার সেনা ও ২ লাখ সদস্যের মুক্তিবাহিনীর কাছে এই সেনার সংখ্যা একেবারেই নগণ্য ছিলো।

জেনারেল বাজওয়া আরও বলেন, সেনা সংখ্যায় এতটা পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও আমাদের সেনা বীরের মতো লড়েছিলেন এবং ভারতীয় সেনাপ্রধান ফিল্ড মার্শাল মানেকশ নিজে স্বীকার করেছিলেন আমাদের সেনারা ত্যাগ স্বীকার করেছে।

তিনি অভিযোগ করেন, পাকিস্তান সেই সেনাদের যোগ্য সম্মান দিতে পারেনি এখনও। তিনি এই বিষয়টিকে বড় অবিচার বলে আখ্যা দিয়েছেন। বাজওয়ার কথায়, আমি এই সুযোগে সেই সব শহিদদের সম্মান জানাই। তারা আমাদের নায়ক এবং দেশের তাঁদের নিয়ে গর্ব করা উচিত।

উল্লেখ্য, নভেম্বরের শেষেই পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর প্রধানের পদ থেকে অবসর নেবেন জেনারেল বাজওয়া। গত ২০১৬ সালে তিনি ৩ বছরের জন্য এই পদে নিযুক্ত হন। পরে আরও ৩ বছরের জন্য তার এই পদে মেয়াদ বাড়িয়ে দেয়া হয়। ইতেমধ্যেই লেফটেন্যান্ট জেনারেল আসিম মুনীরকে সেনাবাহিনীর নতুন প্রধান (সিওএএস) হিসেবে ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত