ঢাকা, বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : ১২ মিনিট আগে
শিরোনাম

ভারতের সঙ্গে সামরিক মহড়া নিয়ে চীনকে নাক না গলানোর হুশিয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৪:০৯

ভারতের সঙ্গে সামরিক মহড়া নিয়ে চীনকে নাক না গলানোর হুশিয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের
ভারতের সঙ্গে যৌথভাবে সামরিক মহড়া চালায় যুক্তরাষ্ট্র। ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চলতি সপ্তাহে উত্তরাখণ্ডে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র যৌথভাবে সামরিক মহড়া চালায়। আর তাতেই আপত্তি জানায় চীন। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় শান্তিপূর্ণ অবস্থান বজায় রাখতে যে চুক্তি হয়েছিল, এই সামরিক মহড়ার কারণে তা লঙ্ঘন করা হয়েছে দাবি করে চীন। তবে চীনের এই দাবিকে অন্যায্য বলে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে কড়া বার্তা দিয়ে বলা হল, ভারত-যুক্তরাষ্ট্রর যৌথ সামরিক মহড়া চীনের নাক গলানোর বিষয় নয়।

শুক্রবার ভারত নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত জানান, আগামীতেও ভারতের আঞ্চলিক প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সমর্থন করবে ওয়াশিংটন। সম্প্রতিই জি-২০ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সাক্ষাতে ভারতের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রর সম্পর্কে কোনও প্রভাব পড়বে না বলেই তিনি জানান।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত এলিজাবেথ জোনস বলেন, আমি আমার ভারতের প্রতিপক্ষদের বলতে চাই যে আমাদের দুই দেশের সামরিক মহড়ায় তাদের নাক গলানোর প্রয়োজন নেই।

ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যকেও সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হবে বলে জানান মার্কিন রাষ্ট্রদূত। তিনি বলেন, বিগত ৭ বছরে ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য দ্বিগুণ হয়ে ১৫৭ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে। এরপরে আলাদাভাবে আর ভারত-যুক্তরাষ্ট্রর মধ্যে বাণিজ্যচুক্তির কোনও প্রয়োজন নেই।

উল্লেখ্য়, চলতি সপ্তাহেই উত্তরাখণ্ডের আউলিতে যৌথ সামরিক মহড়া চালায় ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র। ইন্দো-চীন সীমান্ত থেতে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে এই সামরিক মহড়া ভারত-চীনের সীমান্ত চুক্তিকে লঙ্ঘন করেছে বলেই দাবি করে চীন।

পাল্টা জবাবে বৃহস্পতিবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভারত নিজের ইচ্ছা মতো যেকোনও দেশের সঙ্গে সামরিক মহড়া চালাতে পারে। এই বিষয়ে ভারত তৃতীয় কোনও দেশকে মন্তব্য করার অধিকার দেয়নি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী বলেন, এই যৌথ সামরিক মহড়ার সঙ্গে ১৯৯৩ ও ১৯৯৬ সালের চীনের সঙ্গে হওয়া চুক্তির কোনও সম্পর্ক নেই। চীন নিজে যে চুক্তি লঙ্ঘন করেছে, তা মনে রাখা উচিত।

সূত্র: এনডিটিভি

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত