ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শিরোনাম

ব্যাংককে আগুনে পুড়ে মরল প্রায় ১০০০ পশু-পাখি

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ : ১১ জুন ২০২৪, ১৬:৪১

ব্যাংককে আগুনে পুড়ে মরল প্রায় ১০০০ পশু-পাখি
ছবি: সংগৃহীত

ব্যাংককের বিখ্যাত চাতুচাক বাজারে আগুন লেগে ১ হাজার পশু-পাখি মারা গেছে। এ ছাড়া প্রায় ১০০টি দোকান পুড়ে গেছে। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ভোর ৪টা ১০ মিনিটে আগুনের সূত্রপাত হয় এবং ৩০ মিনিট পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু ততক্ষণে পুড়ে মারা যায় প্রায় এক হাজার পশু-পাখি।

থাইল্যান্ডের বৃহত্তম বাজার চাতুচাক। অনলাইনে কিছু ছবিতে দেখা যায়, আগুনে বিশাল একটি অংশ পুড়ে গেছে এবং পুড়ে যাওয়া খাঁচায় ভরে গেছে। স্থানীয় টেলিভিশনের একটি ফুটেজে দেখা যায়, দোকানদাররা আগুনে পোড়া মৃত সাপ জড়ো করছে এবং তাদের দোকানের বাইরে বাক্সে রাখছে।

আগুনে পাখি, কুকুর, বিড়াল,ইঁদুর এবং সাপসহ আরো কিছু প্রাণী খাঁচার মধ্যেই পুড়ে মারা গেছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কোনো মানুষ হতাহতের বা আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছিল বলে তারা জানিয়েছে। কিছু দোকানের মালিক বাজারে থাকতেন। তবে আগুন লাগার সময় সেখানে ঠিক কতজন ছিলেন তা স্পষ্ট নয়।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, প্রায় এক হাজার ৪০০ বর্গমিটারজুড়ে (১৫ হাজার বর্গফুট) থাকা পোষা প্রাণীর ১১৮টি দোকানের বেশির ভাগই আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পালানোর জন্য সংকীর্ণ জায়গা উল্লেখ করে এক দোকান মালিক মিচা জানিয়েছেন, তার দোকানের ওপরে মাচায় পশুদের কান্না শুনে তিনি জেগে উঠেছিলেন। তিনি বলেন, ‘হঠাৎ ঘন ধোঁয়া ও বাতাসে ভরে গেল চারদিক, শ্বাস নেয়া অসম্ভব ছিল।’

ব্যাংককের বিখ্যাত চাতুচাক বাজারের সরু গলিতে হাজার হাজার দোকান রয়েছে। এটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ বাজার এবং থাইল্যান্ডের সপ্তাহিক বাজারগুলোর মধ্যে বৃহত্তম ও সর্বাধিক পরিচিত। প্রতি শনিবার এবং রবিবার প্রায় ২ লাখ পর্যটক এখানে আসে। তবে পোষা প্রাণী বিক্রির বাজারের অংশটি সপ্তাহজুড়েই খোলা থাকে। চাতুচাক বাজারে ২৭টি সেকশন বা বিভাগ রয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি বিতর্কিত পোষা প্রাণী বিক্রির এই বিভাগটি। এ ছাড়া প্রাণীদের খারাপভাবে রাখার জন্য বেশ সমালোচিত।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পঠিত