ঢাকা, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬ অাপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ১৫:০১

প্রিন্ট

ভোটারদের সামনেই মেজাজ হারালেন মিমি চক্রবর্তী

ভোটারদের সামনেই মেজাজ হারালেন মিমি চক্রবর্তী
মিমি (ফাইল ফটো)
কলকাতা প্রতিনিধি

‘সিনেমা ছেড়ে আমার এখানে আসার কোনও উদ্দেশ্য নেই। আমার উদ্দেশ্য একটাই। যাতে আমি আপনাদের জন্য কাজ করতে পারি। জেনে রাখবেন, আপনাদের জন্য যখন এখানে এসেছি, আপনাদের জন্যই কাজ করতেই এসেছি। আমার এখানে কোনও আলাদা স্বার্থ নেই। এটা আপনারা সবসময় মাথায় রেখে দেবেন। সবকিছু ছেড়ে আমি এখানে কি জন্য এসেছি? একমাত্র আপনাদের জন্য। আপনাদের জন্য কাজ করতেই আমি এসেছি।’

একের পর সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া নানা ছবি ও তাকে ঘিরে তৈরি হওয়া নানা বিতর্কের জবাব দিতে গিয়ে এভাবেই নির্বাচনী প্রচারণার ময়দানে দর্শকদের সামনে মেজাজ হারালেন পশ্চিমবঙ্গের যাদবপুর কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তথা অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী।

গত শুক্রবার যাদবপুরের একটি নির্বাচনী সভায় দাঁড়িয়ে এভাবেই দর্শকদের কাছে ক্ষোভ উগরে দিলেন মিমি। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টলিউডের উঠতি অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তীর নাম যাদবপুর কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী হিসাবে ঘোষোণা করার এরপর থেকেই মিমির বিভিন্ন সিনেমার ক্লিপিংস ও নানা ধরনের সিনেমার বিতর্কিত ডায়ালগ সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হতে থাকে। যা নিয়ে এর আগেও বিব্রত বোধ করেছেন অভিনেত্রী।

মিমি ছাড়াও এবারে পশ্চিমবঙ্গের বসিরহাট কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের প্রার্থী অভিনেত্রী নুসরত জাহানকে নিয়ে নানা বিতর্কিত ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় নুসরত ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যারা এসব করছেন তাদের বাড়িতেও নিশ্চয়ই মা বোন আছেন। এটা অপসংস্কৃতি ও অশিক্ষিতদের কাজ বলেও জানান তিনি।

তথাপি সমালোচনা যেন সমানে তাড়া করে ফিরছে মিমি চক্রবর্তীকে ঘিরে।

ভোটের ময়দানে নেমে ভোটারদের মন জয় করতে কার্যত নাওয়া খাওয়া ভুলে দিনরাত এক করে দক্ষিন কলকাতার যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের একপ্রান্ত থেকে অপরপ্রান্তে ছুটে বেড়াচ্ছেন মিমি চক্রবর্তী। রুপোলি পর্দার এই অভিনেত্রীকে দেখতে কাতারে কাতারে মানুষও ছুটে আসছেন। উৎসাহী মানুষের অনুরোধে কখনও কখনও রাস্তার মাঝেই গাড়িও থামাতে হচ্ছে তাকে।

গত বৃহস্পতিবার যাদবপুর কেন্দ্রে প্রচারে বেরিয়ে উৎসুক মানুষের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করতে গিয়ে গাড়ির ভিতর থেকেই গ্লাভস পরা হাত বাড়িয়ে দেন মিমি চক্রবর্তী। এরপর মানুষের সঙ্গে গ্লাভস পরা হাতে করমর্দনের সেই ছবি ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক মাধ্যমে। সঙ্গে সঙ্গে যা ভাইরাল হয়ে যায়। নেটিজনদের ট্রোল ও সমালোচনার মুখেও পড়েন মিমি।

ওই ঘটনায় মিমির সেই গ্লাভস পরা ছবি ট্যুইটে পোষ্ট করে বিজেপি নেতা মেজর সুরেন্দ্র পুনিয়া লেখেন, দুঃখিত ও বিরক্তিকর। যাদবপুর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী হাতে গ্লাভস পরে দলিত ও গরীব ভোটারদের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। রানী এলিজাবেথ, তারা কি অস্পৃশ্য? ভারতীয় গণতন্ত্র সংসদে এই ধরনের ব্যাক্তিদের কামনা করেন?

এরপরেই মিমির বিরক্তি ক্রমশ চড়তে থাকে। যদিও মিমির দল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয়, মিমি নখের সমস্যায় ভুগছেন। তাছাড়া গত কয়েকদিন ধরে রোদের মধ্যে ভোট প্রচারে বেরিয়ে তাঁর স্ক্রিনেও সমস্যা দেখা দিয়েছে। যে কারনেই তিনি গ্লাভস পরে ছিলেন। কিন্ত তাতেও সমালোচনা থামেনি। ফলে বিরক্ত মিমি শেষমেষ ভোটের প্রচারণায় গিয়ে মঞ্চে ভোটারদের সামনেই মেজাজ হারালেন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close